জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় খালাস পাওয়া লেখক ও দৈনিক বাংলা ৭১ এর সম্পাদক প্রবীর সিকদারের দীর্ঘ যন্ত্রণার 'দায়’ নির্ধারণ করতে হবে। তার ব্যক্তিজীবন, পারিবারিক জীবন ও পেশাগত জীবনের ক্ষয়ক্ষতি নির্ধারণ করতে হবে এবং ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। নয়তো এই ধরনের ঘটনা অহরহ ঘটতেই থাকবে। 

সরকার বিভিন্ন অজুহাতে সাংবাদিকসহ সাধারণ মানুষের উপর নিপীড়নের খড়গ চালাতে থাকবে এবং নাগরিকদের জীবনকে বিপন্ন করে তুলবে।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, নিরপরাধ সাংবাদিকসহ নাগরিকগণ মিথ্যা মামলা ও রিমান্ডের নামে নির্যাতনের শিকার হবেন, তাদের পেশাগত জীবন বিপন্ন ও ব্যক্তিজীবন ধ্বংস হয়ে যাবে তবুও সরকার কোনো দায় বহন করবে না- এটা রাষ্ট্রের কোনো চরিত্র হতে পারে না, এটা সভ্যতার প্রতিনিধিত্ব করে না।

রব বলেন, আদালত বলেছেন, 'মামলা করেছেন দূরের একজন, তার এ অভিযোগে মামলা করার এখতিয়ারই নেই।' তাহলে এই বেআইনি কর্মকাণ্ডে  অতি উৎসাহী হয়ে মামলা দায়ের এবং গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নেয়াসহ সরকারের অতি বাড়াবাড়ির দায় সরকারকেই বহন করতে হবে। যাদের ভুলে, যাদের বাড়াবাড়িতে এবং যাদের অতি উৎসাহে প্রবীর সিকদারের জীবন ধ্বংস হয়ে গেছে, তাদেরকে অবশ্যই আইনের আওতায় আনতে হবে। 

তিনি বলেন, এ ঘটনায় প্রমাণিত হয়েছে- সরকার জনগণের অধিকার সুরক্ষার চেয়ে অধিকার হরণ করতেই অতিউৎসাহী। ইতোমধ্যে আইসিটি আইনের নামে ভুয়া মামলায় সাংবাদিকসহ অসংখ্য নাগরিকের জীবন দুর্বিষহ করে তোলা হয়েছে।