মাঠে ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে এ কারণে আগামী বুধবার  ঈশ্বরদীর আলহাজ টেক্সটাইল মিলস উচ্চ বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। সোমবার স্কুল কর্তৃপক্ষ এই ছুটির ঘোষণা দেন। গত কয়েকদিন ধরে স্কুলমাঠে চলছে প্যান্ডেল তৈরির কাজ।

স্কুল ছুটির বিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হোসেন বলেন, সম্মেলনের কারণে স্কুলমাঠে প্রচুর জনসমাগম ঘটবে। সে কথা ভেবে বুধবার স্কুল ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। 

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সেলিম আক্তার বলেন, প্রধান শিক্ষক চাইলে তার সংরক্ষিত ছুটি থেকে স্কুল ছুটি দিতে পারেন।

এদিকে ৮ বছর পর বুধবার ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক এই সম্মেলনকে ঘিরে ঈশ্বরদীতে আওয়ামী লীগে দুটি পক্ষের পাল্টাপাল্টি অবস্থানও এখন দৃশ্যমান।

জানা গেছে, পাবনা-৪ আসনের এমপি নুরুজ্জামান বিশ্বাসকে আওয়ামী লীগের একাংশের উদ্যোগে গত ১৭ সেপ্টেম্বর দেওয়া সংবর্ধনার দিন থেকে দুটি পক্ষের এই গ্রুপিং প্রকাশ্যে আসে। এদিন এমপি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নায়েব আলী বিশ্বাসের নাম প্রস্তাব করার পর থেকে দৃশ্যমান হয় গ্রুপিং। গত ২৩ সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের অপর পক্ষ আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করে সভাপতি পদে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র ইছাহক আলী মালিথা এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সাবেক ভূমিমন্ত্রী প্রয়াত শামসুর রহমান শরীফের ছেলে সাকিবুর রহমান শরীফ কনকের নাম ঘোষণা করে। এই প্যানেলকে তৃণমূলের প্যানেল হিসেবেও ঘোষণা করা হয়। এই প্যানেল ঘোষণা করেন প্রয়াত ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর সহধর্মিনী কামরুন্নাহার শরীফ।

এদিকে গত শনিবার উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিতসভাকে কেন্দ্র করে দুটি পক্ষের পাল্টাপাল্টি অবস্থান আরও প্রকাশ্যে আসে। জানা গেছে, আওয়ামী লীগের এ দুটি পক্ষের একদিকে রয়েছেন সাংসদ নুরুজ্জামান বিশ্বাস, উপজেলা চেয়ারম্যান নায়েব আলী বিশ্বাস, সাবেক পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টুসহ তার অনুসারী সাবেক কমিটির ছাত্রলীগ-যুবলীগের একাংশ। অপর পক্ষে রয়েছেন ঈশ্বরদী পৌরসভার বর্তমান মেয়র ইছাহক আলী মালিথা, সাবেক ভূমিমন্ত্রীর সহধর্মিনী কামরুন্নাহার শরীফ, ছেলে সাকিবুর রহমান শরীফ কনক, উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের একাংশ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটি। 

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে যেন কোনো সহিংসতা ঘটনা না ঘটে সেজন্য এরই মধ্যে পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি দুই পক্ষকে আলাদা আলাদাভাবে সতর্ক করে দিয়েছেন বলে তিনি সমকালকে জানিয়েছেন।

ঈশ্বরদী থানার পক্ষ থেকেও সম্মেলনকে ঘিরে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ প্রশাসন। ইতোমধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বাড়তি তৎপরতাও নজরে এসেছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনসহ সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির সোমবার সন্ধ্যায় জানান, আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে যেন কোনো সহিংসতা না হয় এবং সার্বিকভাবে সকলের নিরাপত্তার কথা ভেবে ঈশ্বরদীতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সম্মেলনের দিন পুলিশের বাড়তি সতর্কতা থাকবে।

দলীয় গ্রুপিং বিষয়ে ঈশ্বরদী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র ইছাহক আলী মালিথা বলেন, দলের মধ্যে আগে কোনো গ্রুপিং দৃশ্যমান ছিল না। সম্প্রতি নুরুজ্জামান বিশ্বাস এমপিকে নিয়ে আওয়ামী লীগের একাংশ সংবর্ধনার আয়োজন করায় এই গ্রুপিং দৃশ্যমান হয়েছে। 

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর জহুরুল হক পুনো বলেন, সম্মেলনকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য একটি পক্ষ দলের মধ্যে বিভাজন তৈরি করে জনপ্রিয়তার তলানিতে থাকা নেতাদের কমিটিতে নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র করছে। 

সাবেক ভূমিমন্ত্রী প্রয়াত শামসুর রহমান শরীফের ছেলে সাকিবুর রহমান শরীফ কনক বলেন, একদিকে বর্তমান এমপির সাক্ষাৎ পান না দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা, অন্যদিকে উৎসাহ নিয়ে সম্মেলনের আয়োজন করা হলেও একটি পক্ষ সম্মেলনকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করছেন।