ফরিদপুরের মধুখালীতে ছিনতাইকৃত ৫ লাখ টাকা উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুই ব্যক্তিকে আটক ও একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সহকারী পুলিশ সুপার (মধুখালী সার্কেল) সুমন কর।

তিনি আরও জানান, বোয়ালমারী উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের এফএমএ মুছার কাছে তার চাচাতো শ্যালক অনিক ইসলাম রনি ভেকু ক্রয়ের জন্য ৫ লাখ টাকা ধার চান। অনিকের চাহিদামতো গত মঙ্গলবার বিকেলে বনমালিদিয়ার মেছড়দিয়া মোড়ের বাজারে রনিকে ৫ লাখ টাকা দেন মুছা।

ওই সময় ফরিদপুরগামী একটি মোটরসাইকেল নিয়ে দুই আরোহী রনির কাছে থাকা ৫ লাখ টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে থানায় মুছা ও রনি টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ দায়ের করেন। একপর্যায়ে রনির কথায় সন্দেহ হয় পুলিশের। পরে জিজ্ঞাসাবাদে রনি ছিনতাইয়ের নাটক এবং সহযোগীদের নাম জানায়।

তিনি আরও জানান, ছিনতাই ঘটনায় জড়িত রাজবাড়ী সদরের উদয়পুর গ্রামের মৃত আকবর হোসেন চানের ছেলে জাকির হোসেন সবুজ ও রাজাপুর গ্রামের শুকুর আলী মোল্যার ছেলে মাসুদ মোল্যা। জাকিরের বাড়ি থেকে বৃহস্পতিবার ভোরে তাকে গ্রেপ্তার ও মাসুদের বাড়ি থেকে ৫ লাখ টাকা উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় মাসুদ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রনি ও সবুজকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।