ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে মন্দিরে হামলায় অভিযুক্ত দুই আসামির ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন বাতিল করেছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ। মঙ্গলবার রাতে নাসিরনগর উপজেলা সদর ও হরিপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেওয়ার একদিন পর বুধবার রাতে তাদের মনোনয়ন বাতিল করে ক্ষমতাসীন দলটি। 

আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন বাতিল করা এ দু’জন হলেন দেওয়ান আতিকুর রহমান ও আবুল হাসেম। আতিকুর রহমান উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা। তিনি ২০১৬ সালের ৩০ অক্টোবর নাসিরনগরে মন্দির ও হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলার ঘটনার অন্যতম প্রধান অভিযুক্ত। আবুল হাসেমও সদর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-প্রচার সম্পাদক। তিনি প্রয়াত মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী ছায়েদুল হকের ভাগনে। হামলার ঘটনার পর তাকে দল থেকে বহিস্কারের সুপারিশ করেছিল জেলা আওয়ামী লীগ।

মঙ্গলবার তাদের মনোনয়ন দেওয়া হলে বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়। বুধবার দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগ তাদের মনোনয়ন বাতিলের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সঙ্গে যোগাযোগ করে। রাতেই তাদের দুজনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়। সদরে আবুল হাসেমের পরিবর্তে পুতুল রানী বিশ্বাস ও হরিপুরে আতিকুরের পরিবর্তে ওয়াসিম আহমেদকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

মনোনয়ন বাতিলের বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার বলেন, নাসিরনগর সদর ও হরিপুর বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান দুজনই মন্দিরে হামলার মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি। এজন্য তাদের মনোনয়ন না দিতে কেন্দ্রে সুপারিশ করা হয়েছিল। প্রথমে তারা মনোনয়ন পেলেও বুধবার রাতে তাদের মনোনয়ন বাতিল করে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ।

নাসিরনগরে মন্দির ও হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলার ঘটনায় আতিকুরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল ২০১৬ সালের ৩০ অক্টোবর। পরে তিনি জামিন পান।