বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি বলেছেন, ‘কুমিল্লার পূজামন্ডপের ঘটনায় গ্রেপ্তার ইকবালকে 'ভবঘুরে' আখ্যা দিয়ে তার অপরাধ বা পরিস্থিতিতে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই। এখন দেখা যাচ্ছে কোরআন অবামাননার ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি হিন্দু নয়, মুসলমান। কিন্তু এখন আর তথাকথিত ধর্মপ্রেমীদের মুখে কথা নেই। আমরা প্রথম থেকে বলে এসেছি সমস্ত ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত। যে কারণেই ওই ব্যক্তির পেছনে কারা আছে সেটা উদঘাটন করতে হবে।’

শুক্রবার বরিশালের উজীরপুর উপজেলার ধামুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত যুব মৈত্রী উজীরপুর উপজেলা শাখার কর্মী সমাবেশে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে রাশেদ খান মেনন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘দেশের তরুণসমাজ সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াই করেছে, তাদের মধ্যেই সাম্প্রদায়িক মানসিকতার বিকৃতি ঘটেছে। স্বাধীনতা পরবর্তীকালে রাষ্ট্রীয় মদদে মানুষের মধ্যে যে সাম্প্রদায়িক বিভাজনের শুরু হয়, তাই আজ ফুলে ফলে পল্লবিত হয়ে সমস্ত সমাজই ছড়িয়ে পড়েছে।’

মেনন বলেন, ‘অর্থনৈতিক বৈষম্য, লুটপাট, দুর্নীতি ও বেকারত্ব জনমনে যে হতাশা সৃষ্টি করেছে, তার ফলে যুবসমাজ ধর্মবাদী মৌলবাদী ও জঙ্গীবাদী প্রচারণায় বিভ্রান্ত হচ্ছে। এ থেকে পরিত্রাণের লক্ষ্যে যুবসমাজের কর্মের নিশ্চয়তার অভিন্ন দাবিতে তাদের ঐক্যবদ্ধ করে তাদের অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক চেতনায় উদ্বুদ্ধ করা অতি জরুরি কাজ। এই কাজকে এখন আরও জোরদার করতে হবে।’

উপজেলা যুব মৈত্রীর সভাপতি জাহিদ হোসেন খান ফারুকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলামের পরিচালনায় কর্মী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যুব মৈত্রীর বরিশাল জেলার সভাপতি ফায়জুল হক বালী ফারাহীন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জহুরুল ইসলাম টুটুল, উপজেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সীমা রানী শীল, যুব নেতা কুমার আকাশ, আলমগীর হোসেন মৃধা প্রমুখ।