বিএনপির সিনিয়র নেতারা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া এ দেশে আর কোনো নির্বাচন হবে না। নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন ছাড়া এ দেশে কোনো নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। এর জন্য সব দল ও মতকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। রাজপথে এক দফার আন্দোলনের মধ্য দিয়ে জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে হবে।

বুধবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তারা এসব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সারাদেশের মানুষকে সংগঠিত করে এই সরকারকে পরাজিত করতে হবে। যে সরকার আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে দীর্ঘদিন ধরে আটক করে রেখেছে, আমাদের স্বপ্নের নেতা তারেক রহমানকে নির্বাসিত করে রেখেছে, অসংখ্য নেতাকর্মীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে, তাদের পরাজিত করতে যুবদলকে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখতে হবে।

যুবদল সভাপতি সাইফুল আলম নীরবের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, মির্জা আব্বাস, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, সহসভাপতি আলী আকবর চুন্নু, মোনায়েম মুন্না, এসএম জাহাঙ্গীর, জাকির হোসেন সিদ্দিকী প্রমুখ বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে সাংগঠনিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান ও শোক প্রস্তাব পেশ করেন সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন।