সরকারের উদ্দেশ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, খালেদা জিয়াকে আপনারা বিনা চিকিৎসায় মেরে ফেলবেন আর জনগণ তা তাকিয়ে তাকিয়ে দেখবেন-এটা কখনোই হবে না, বাংলাদেশে হবে না।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা যেমন মানে নাই, তেমনি আপনাদের (সরকার) ষড়যন্ত্রও মানবে না। গণঅভ্যুত্থান হবে। লড়াই হবে। সকলে সেই আন্দোলনের প্রস্তুতি নিন।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) উদ্যোগে জোট নেত্রী খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলছেন- খালেদা জিয়ার এমন কিছু জটিলতা আছে যেটার সুচিকিৎসা এখানে সম্ভব নয়। দেশের বিশিষ্ট আইনজীবীরা বলছেন, এরকম অবস্থায় চিকিৎসার জন্য বাইরে পাঠানোর ব্যাপারে আইনের কোনো বাঁধা নেই। কিন্তু তারপরেও আমাদের সরকার যারা বিনা ভোটে ক্ষমতা দখল করে বসে আছে তারা খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিতে দিচ্ছে না।

তিনি বলেন, এটা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ছাড়া আর কিছু নয় এবং এই রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বাস্তবায়নের জন্য তারা ব্যবহার করছে রাষ্ট্র যন্ত্রকে, রাষ্ট্র শক্তিকে। আমি শুধু তাদের মনে করিয়ে দিতে চাই, পুলিশ দিয়ে যদি আন্দোলন দমন করা যেতো তাহলে বাংলা আমাদের রাষ্ট্র ভাষা হতো না, সশস্ত্র বাহিনীকে দিয়ে যদি জনগণের আকাঙ্ক্ষাকে দমন করা যেতো তাহলে আমরা স্বাধীনতা পেতাম না।

জাপার (কাজী জাফর) সভাপতি মোস্তফা জামাল হায়দারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, এনপিপির ফরিদুজ্জামান ফরহাদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।