কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে নিজ দলের স্থানীয় নেতাদের নামে ভোট বিক্রি ও আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের মতো কাজ করার অভিযোগ তুলেছেন বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আবিদ হাসান মন্টি। গেল তৃতীয় ধাপে ২৮ নভেম্বর নির্বাচনে আনারস মার্কা নিয়ে অংশ নেন তিনি। এর আগে ধানের শীষ প্রতীকেও ইউপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন মন্টি সরকার।

শনিবার সকালে উপজেলার রিফায়েতপুর বাজারে নিজের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি দাবি করেন, ভোটের দু’দিন আগে উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতারা আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা মার্কা প্রতীকের পক্ষে ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহীদের পক্ষে মাঠে নামেন। যার ফলে উপজেলাব্যাপী সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট হলেও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের ব্যাপক পরাজয় ঘটে। ১৩টি ইউনিয়নে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা তৃতীয়-চতুর্থ অবস্থানে থাকে।

সম্মেলনে পাঠ করা লিখিত বক্তব্যে আবিদ হাসান মন্টি বলেন, এখানে সারাবছর দলীয় বা জাতীয় দিবসে বিএনপির কোনো আনুষ্ঠানিকতা বা কর্মসূচি পালন করা হয় না। অথচ নির্বাচন এলে ঘটা করে বাণিজ্য করার প্রয়াসে তৎপর হয়ে ওঠেন কিছু সুবিধাবাদী নেতা। বিগত কয়েকবছর যাবৎ এই উপজেলায় বিএনপির দলীয় ভোট বিক্রির মহোৎসব চলে বলেও জোর দাবি জানান তিনি।

এর আগে বিভিন্ন নির্বাচনে বিএনপি না এলেও নৌকা প্রতীকের জন্য গোপনে বিএনপি নেতারা ভোট করেছেন বলেও দাবি জাতীয়তাবাদী তরুণ প্রজন্ম দলের কেন্দ্রীয় কমিটির এই সহ-সভাপতির। আবিদ হাসান মন্টির প্রয়াত বাবা ও বৃদ্ধ মা দুজনেই রিফায়েতপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান।