সিলেটের বালাগঞ্জে ভোট না দেওয়ায় এক ভোটারকে জনসম্মুখে জুতাপেটা ও জুতার মালা পরিয়ে লাঞ্ছিতের অভিযোগ উঠেছে এক পরাজিত সাধারণ সদস্য পদ (মেম্বার) প্রার্থীর বিরুদ্ধে। রোববার এই ঘটনায় আদালতে মামলা করেছেন আক্রান্ত ভোটার বালাগঞ্জের বোয়ালজুড় ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামের ইয়াছিন মিয়া।

অভিযোগে বলা হয়, গত ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন নশর মিয়া। নির্বাচনে তাকে ভোট না দেওয়ায় গত ১৩ নভেম্বর রাতে সোনাপুর গ্রামের কামাল মিয়ার বাড়িতে ইয়াছিনসহ কয়েকজন ভোটারকে ডেকে নেওয়া হয়। এ সময় পরাজিত মেম্বার ও তার সহযোগীরা জনসম্মুখে ইয়াছিনসহ কয়েকজন ভোটারকে জুতাপেটা ও জুতার মালা গলায় পরিয়ে লাঞ্ছিত করেন। তারা ইয়াছিনের কাছে তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন এবং তা দিতে ব্যর্থ হলে গ্রামছাড়া করার হুমকি দেন।

ইয়াছিন জানান, এ ঘটনার বিচার চেয়ে রোববার সিলেট সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল আদালতে মামলা করেছেন তিনি।

তবে নশর মিয়া অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। ভোটে তার প্রতিদ্বন্দ্বী তজমুল হোসেন জনি তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।