সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, তারেক রহমান ও জিয়া পরিবারের নারী সদস্যদের নিয়ে অশালীন মন্তব্য করায় সদ্য পদত্যাগ করা তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। 

জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের একজন জ্যেষ্ঠ নেতা সমকালকে বলেন, সোমবার রাতে দলটির জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এ সিদ্ধান্তের আলোকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দেশের ৬৪ জেলায় মামলা করবেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সদস্যরা। 

তিনি বলেন, ‘মামলার ড্রাফট করার কাজ প্রায় শেষ। এখন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের নির্দেশনা পেলে আমরা সেই ড্রাফট সারাদেশে পাঠিয়ে দেব।’

বিএনপি বলেছে, খালেদা জিয়া, তারেক রহমান এবং জিয়া পরিবারের সদস্য, বিশেষ করে নারী সদস্যদের নিয়ে ডা. মুরাদ হাসানের অশালীন, অরুচিকর রাজনৈতিক ও সামাজিক শিষ্টাচার বিবর্জিত সম্মানহানিকর। 

তারা বলেন, রাষ্ট্রীয় দায়িত্বশীল পদে থেকে এই ধরনের নারী বিদ্বেষী, বর্ণবাদী, সমাজবিরোধী বক্তব্য ও সংবিধানবিরোধী এই বক্তব্যের মাধ্যমে সমগ্র নারী সমাজ এবং মানবতাকে হেয় করা হয়েছে। তাই ডা. মুরাদকে মন্ত্রিসভা ছাড়াও জাতীয় সংসদ থেকে অপসারণ ও প্রকাশ্যে জনগণের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে। পরে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।