ঢাকা সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মানবাধিকার দিবসে নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরতে চায় বিএনপি

মানবাধিকার দিবসে নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরতে চায় বিএনপি

দলীয় লোগো।

 সমকাল প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১০ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১০:৪৪ | আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১২:১৬

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে আজ ঢাকাসহ সব জেলা সদরে মানববন্ধন করবে বিএনপি। সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে প্রায় দেড় মাস ধরে চলা হরতাল ও অবরোধের সাময়িক বিকল্প হিসেবে এ কর্মসূচিতে ব্যাপক সমাগম ঘটাতে চায় দলটি। এ জন্য বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব দায়িত্বশীলদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছে। কর্মসূচিতে দলীয় নেতাকর্মী ছাড়াও অংশ নেবেন কারাবন্দি, গুম-খুন ও নির্যাতনের শিকার নেতাকর্মীর পরিবারের সদস্যরা। 

এই কর্মসূচির মাধ্যমে তারা দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের পরিস্থিতি এবং নির্বাচন সামনে রেখে রাজনৈতিক দলগুলোর ওপর নিপীড়নের চিত্র বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে চায়। বিএনপি নেতাদের প্রত্যাশা, বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে গণতান্ত্রিক বিশ্ব বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমারা তাদের ভূমিকা শিগগির আরও জোরালো করবে। আজ সরকার ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর আচরণ দেখে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করার কথা। বিএনপির পাশাপাশি আজ রোববার মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করবে যুগপৎ আন্দোলনে থাকা মিত্র দলগুলোও।

জানা গেছে, নির্বিঘ্নে এ মানববন্ধন সম্পন্ন হলে এবং ব্যাপক সমাগম হলে এমন কর্মসূচি শিগগির আরও ঘোষণা করা হতে পারে। তা না হলে ফের হরতাল-অবরোধের কর্মসূচিতে ফিরবে বিএনপি ও আন্দোলনের শরিকরা। ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বেলা ১১টায় মানববন্ধন হবে। এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর বিএনপি সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। এ ছাড়া কর্মসূচি সফল করতে অন্য জেলাগুলোও  প্রস্তুতি নিয়েছে। 

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী শনিবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার হিসাব অনুযায়ী দেড় দশকে বাংলাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ৬৪৭ জন গুম হয়েছেন। যাদের মধ্যে ৮৪ জনের মৃতদেহ পাওয়া গেছে। ৩৯৯ জনকে জীবিত ফেরত পাওয়া গেছে অথবা গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। ১৬১ জনের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। তাদের মধ্যে সংসদ সদস্য এম ইলিয়াস আলী ও সাইফুল ইসলাম হিরু, কাউন্সিলর চৌধুরী আলম, হুমায়ুন পারভেজসহ বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদল নেতা রয়েছেন। তবে বিএনপির হিসাবে প্রকৃত সংখ্যা তিন থেকে চার গুণ বেশি। কারণ এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে কেবল গুম হয়ে যাওয়া পরিবারের তথ্যের ভিত্তিতে। অনেক পরিবার তথ্য দেওয়ার সাহস পায়নি।’ রিজভী আরও বলেন,  শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে দলের পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। 

গণতন্ত্র মঞ্চসহ সমমনাদেরও প্রস্তুতি

যুগপৎ আন্দোলনে থাকা গণতন্ত্র মঞ্চ বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীতে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সামনে মানববন্ধন করবে। বেলা ১১টায় বিজয় নগর পানির ট্যাঙ্কের সামনে ১২ দলীয় জোট, একই সময়ে পুরানা পল্টনে আলরাজী কমপ্লেক্সের সামনে জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এলডিপি, পুরানা পল্টনে নুরুল হক নুর নেতৃত্বাধীন গণঅধিকার পরিষদ ও ড. রেজা কিবারিয়া নেতৃত্বাধীন গণঅধিকার পরিষদ, হাইকোর্টের সামনে কদম ফোয়ারার কাছে গণফোরাম ও পিপলস পার্টি, জাতীয় প্রেস ক্লাবের উল্টো দিকে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য মানববন্ধন করবে।

দুপুর ১২টায় তোপখানা রোডে মেহেরবা প্লাজার সামনে মানববন্ধন করবে লেবার পার্টি। যুগপৎ আন্দোলনে না থাকলেও একই রকম কর্মসূচি পালন করবে আমার বাংলাদেশ পার্টি (এবি পার্টি)। বিকেল ৩টায় বিজয় নগরে কর্মসূচি পালন করবে দলটি। এ ছাড়া বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ, জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন ও ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ড্যাব 
সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করবে। একই কর্মসূচি পালন করবে জামায়াতে ইসলামী। তবে কখন, কোথায় পালন করবে তা গণমাধ্যমকে জানায়নি দলটি।

আরও পড়ুন

×