গাজীপুরের শ্রীপুরে বিএনপির কমিটিতে পদ পদবী নিয়ে সংঘর্ষে দলীয় কার্যালয় ভাংচুর ও হামলার ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার সন্ধ্যার মাওনা চৌরাস্তা এলাকায় অবস্থিত বিএনপি কার্যালয়ে নবগঠিত কমিটির সভা চলাকালে এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব মুহাম্মদ আক্তারুল আলম মাস্টার ও তেলিহাটি ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মোড়ল সেই ঘটনা সম্পর্কে সমকালকে বিস্তারিত জানান।

তারা জানান, গত বছরের ৮ অক্টোবর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। বুধবার সন্ধ্যায় এ কমিটি প্রথমবারের মতো এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। শ্রীপুর উপজেলা বিএনপির নবগঠিত কমিটির মতবিনিময় সভা চলছিল। দলের বিভিন্ন ইউনিট পুনর্গঠনের লক্ষে দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা সেখানে উপস্থিত হন।

এর কিছুক্ষণ পর মুখে মাস্ক পরিহিত কিছু যুবক হাতে লাঠি আর দাসহ মহড়া দেওয়া শুরু করেন। হঠাৎ করেই তারা বিএনপি অফিসে ঢুকে পড়েন। একপর্যায়ে নেতাকর্মীদেরকে পেটাতে শুরু করেন এবং কার্যালয় ভাঙচুর শুরু করেন। বাধা দিলে সেখানে উপস্থিত নেতাকর্মীদের উপর চড়াও হন তারা।

এ সময় তেলিহাটি ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রাকিবুল হাসান ও যুবদল নেতা ওমর ফারুক আহত হন। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব মুহাম্মদ আক্তারুল আলম মাস্টার বলেন, সভা শুরু হওয়ার পরপরই মাস্ক পরিহিত কয়েকজন যুবক অফিসে হামলা করেন। এ সময় অনেকে আহত হন। তিনি আরও বলেন, তেলিহাটী ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মোড়লের নেতৃত্বে দলীয় নেতাকর্মী ছাড়াও ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা এ হামলা চালায়।

তেলিহাটি ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মোড়ল বলেন, আহ্বায়ক কমিটিতে আমাদের অনেক নেতাকর্মীকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। নবগঠিত কমিটিতে কেন তাদেরকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি তা জানার জন্য সভাস্থলে গেলে তারা আমাদের উপর হামলা চালায়। এখন উল্টো আমাদের উপর অভিযোগ করছেন তারা।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোন্দকার ইমাম হোসন বলেন,ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।