জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ বলেছে, ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল অস্থায়ী বাংলাদেশ সরকার গঠন এবং ১৭ এপ্রিল মুক্তিযুদ্ধের রণাঙ্গনে মুজিবনগরে সেই সরকারের শপথ গ্রহণ মুক্তিযুদ্ধসহ বাংলাদেশের জাতীয় ইতিহাসের এক অনন্য মহান ঘটনা। 

শনিবার ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে জাসদের (একাংশ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু ও সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অনুপস্থিতিতে তাকে বাংলাদেশ সরকারের রাষ্ট্রপতি, জাতীয় নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলামকে ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি, তাজউদ্দিন আহমেদকে প্রধানমন্ত্রী, এ এইচ এম কামারুজ্জামান, মনসুর আলীসহ নির্বাচিত গণপরিষদ সদস্যদের নিয়ে অস্থায়ী বাংলাদেশ সরকার গঠন, ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণার মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠিত স্বাধীন রাষ্ট্রের ন্যায্যতা আন্তর্জাতিকভাবে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছিল। 

জাসদ নেতারা বলেন, অস্থায়ী বাংলাদেশ সরকার পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর দখল থেকে দেশ মুক্ত করার লক্ষ্যে সংঘটিত মুক্তিযুদ্ধকে রাজনৈতিক নেতৃত্বে পরিচালিত করে বিজয়ী করতে উচ্চ রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও রাজনৈতিক দক্ষতা প্রদর্শন করেছিলেন। 

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, অস্থায়ী বাংলাদেশ সরকারের স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রও বাংলাদেশ ও বিশ্বের রাজনীতি এবং স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে এক অনন্য ঘটনা। বাংলাদেশ ও আমেরিকা ছাড়া বিশ্বের আর কোনো দেশের লিখিত স্বাধীনতার ঘোষণা নাই। 

তারা বলেন, স্বাধীনতার এই মহান ঘোষণাপত্রের ভিত্তিতেই স্বাধীন বাংলাদেশের সংবিধান প্রণীত হয়েছিল। 

জাসদ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বিবৃতিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় নেতা তাজউদ্দিন আহমেদ, এ এইচ এম কামারুজ্জামান, সৈয়দ নজরুল ইসলাম, ক্যাপ্টেন মনসুর আলীর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র ও সেই ঘোষণাপত্রের ভিত্তিতে প্রণীত স্বাধীন বাংলাদেশের সংবিধানের আলোকে গণতান্ত্রিক, সমাজতান্ত্রিক, ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র ও সমাজ গড়ে তোলার সংগ্রাম অব্যাহত রাখার প্রত্যয় পুনর্ব্যক্ত করেন।

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে জাসদের আলোচনাসভা

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে জাসদ কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির উদ্যোগে আগামীকাল রোববার বিকেল ৪টা ৩০মিনিটে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে কেন্দ্রের অনুরূপ কর্মসূচি পালন করার জন্য জাসদের সকল জেলা ও উপজেলা কমিটির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন এবং কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটি আয়োজিত রোববারের আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করার জন্য ঢাকায় অবস্থানকারী জাসদ ও সহযোগী সংগঠনসমূহের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।