ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। হামলায় ছাত্রদলের প্রায় ৪০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন ও আহতদের কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর বলে দাবি করেছে ছাত্রদল। মঙ্গলবার সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় এ সংঘর্ষের শুরু হয়।  

ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা জানান, সকাল ১১টার দিকে ছাত্রদলের দুই নেতাকে মারধরের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হলের গেটের পাশে অবস্থিত ড্রেনে ফেলে দেয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ছাত্রদলের অভিযোগ, এ হামলায় শহীদুল্লাহ হলের একাধিক ছাত্রলীগ কর্মী অংশ নেয়। আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

ড্রেনে ফেলা দেওয়া দুই ছাত্রদল নেতা হলেন- বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এজিএস ছাত্রদল নেতা আল আমিন বাবলু এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাবেক সহ-সভাপতি মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

ছাত্রদল নেতা মিনহাজুল আবেদীন নান্নু সমকালকে বলেন, ‘দোয়েল চত্বর এলাকায় মিছিল দিয়ে আসছিলাম আমরা। পরে শহীদুল্লাহ হলের ছাত্রলীগ কর্মীরা আমাদের টেনে ভেতরে নিয়ে মারধর শুরু করে। লাঠি-হকিস্টিক দিয়ে মারধর করে তারা। এর পাশাপাশি তারা চাপাতি দিয়ে কোপ দেয়। আমার পা পুরোপুরি ভেঙে গেছে।’

এর আগে, ছাত্রলীগের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত হয়েছেন ছাত্রদলের ঢাবি শাখার আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মানসূরা আলম। শহীদ মিনার এলাকায় হামলার শিকার হয়েছেন তিনি। সেখান থেকে অন্য নেতাকর্মীরা তাকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যান। হাতে গুরুতর আঘাত পেয়েছেন তিনি। বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।