দেশব্যাপী ছাত্রদলের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগ কর্মীদের হামলা ও পরে ধরপাকড়ের নিন্দা জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জনগণের প্রবল আন্দোলনে ‘সরকারি তাণ্ডবের’ সমাপ্তি ঘটবে।

তিনি বলেন, ‘আজকে এটা নতুন নয়, আওয়ামী লীগ সন্ত্রাস করেই টিকে আছে। সন্ত্রাসীর মাধম্যে তারা এদেশে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায়। জনগণের উত্তাল আন্দোলনের স্রোতে এ সন্ত্রাসীদের সমাপ্তি ঘটবে।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর শমরিতা হাসপাতালে আহত ছাত্রদল নেতাকর্মীদের দেখতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন। বিএনপি মহাসচিবসহ দলের একাধিক নেতাকর্মী হাসপাতালে যান। তারা আহতদের চিকিৎসার বিষয়ে কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের মতো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের সঙ্গে সংঘাতে জড়ায় ছাত্রদল কর্মীরা। 

সংঘর্ষে শতাধিক ছাত্রদল নেতাকর্মী আহত হয়েছেন দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা ভয়াবহ তাণ্ডব ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালসহ প্রায় শতাধিক ছাত্রনেতা কর্মীকে আহত করেছে। এমনকি হাইকোর্টের ভিতরে ঢুকে খুঁজে বের করে মেরেছে। তারা নারীদেরও রেহাই দেয়নি।’

তিনি বলেন, ‘আহতদের মধ্যে শুধু শমরিতা হাসপাতালেই ভর্তি রয়েছে ৫০ জনের বেশি। এছাড়া অন্যান্য হাসপাতালেও অনেকে রয়েছেন। প্রত্যেকে মারাত্মকভাবে আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দুইজন আইসিইউতে আছে, মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত আছে।’ 

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়াকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী কটূক্তি করার পর স্বাভাবিকভাবেই নিন্দার যে ঝড় উঠেছে। সে ঝড়কে দমন করার জন্য তারা সন্ত্রাসের আশ্রয় নিয়েছে। এটা হচ্ছে ফ্যাসিবাদীদের চরিত্র। আমরা এর তীব্র নিন্দ্রা জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে ছাত্রদের যারা আক্রমণ করেছে তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জোর দাবি জানাচ্ছি।’