ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা মারাত্মক আহত হলেও এবার তাদের বিরুদ্ধে মামলাও করেছেন সরকারদলীয় ছাত্র সংগঠনটির এক নেতা। সংঘর্ষের ঘটনায় কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদকসহ ১৮ নেতা এবং অজ্ঞাত ৫০-৬০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে রাজধানীর শাহবাগ থানায় মামলাটি করেন ঢাবির ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম। গত মঙ্গলবার ঢাবির দোয়েল চত্বর এলাকায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়।

মামলায় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল, কেন্দ্রীয় কমিটির জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি রাশেদ ইকবাল খান, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আফসান মোহাম্মদ ইয়াহিয়া, ঢাবি শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক আকতার হোসেন ও সদস্য সচিব আমানউল্লাহ আমান প্রমুখের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে দাবি করা হয়, অভিযুক্তরা লাঠিসোটা, লোহার রড নিয়ে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে। এতে ঢাবির ৮ জন সাধারণ শিক্ষার্থীসহ অনেকে গুরুতর আহত হন। মামলার বিষয়ে শাহবাগ থানার ওসি মওদুদ হাওলাদার বলেন, জাহিদের মামলাটি পুলিশ গ্রহণ করেছে।

ছাত্রদল নেতাকর্মীদের চিকিৎসা না দেওয়ার অভিযোগ: ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী মারাত্মক আহত হন। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে গুরুতর আহত ছয়জনকে রাজধানীর তেজগাঁও এলাকার শমরিতা হাসপাতালের আইসিইতে নেওয়া হয়। কিন্তু পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা না দিয়েই পাঁচ নেতাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ঢাবি শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক আক্তার হোসেন। তিনি বলেন, অন্যান্য হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নেতাকর্মীরা পুলিশের অভিযানের ভয়ে হাসপাতাল থেকে চলে গেছেন।

ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের মহড়া: ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের প্রবেশ ঠেকাতে গতকালও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান নেয় ছাত্রলীগ। মধুর ক্যান্টিন, টিএসসি, কার্জন হল ও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় সকাল থেকেই তারা অবস্থান নিয়েছিল। ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ঠেকাতে স্টাম্প, কাঠ ও লাঠিসোটা প্রস্তুত রেখেছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। চলে মোটরসাইকেলের শোডাউন। তবে ছাত্রদল ক্যাম্পাসে ঢুকবে না বলে আগেই জানিয়েছিলেন আক্তার হোসেন।

ছাত্রলীগের মানববন্ধন আজ: ঢাবির সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর 'হামলা' ও ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবিতে আজ রোববার সকালে রাজু ভাস্কর্যের সামনে মানববন্ধনের ডাক দিয়েছে ছাত্রলীগ। গতকাল কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।