অবৈধ সম্পদ অর্জন ও অবৈধ সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের রাজশাহী সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী পরিমল কুমার কুরীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। 

সোমবার মামলাটি দায়ের করেন দুদকের রাজশাহী জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমির হোসাইন। তিনি জানান, অনুসন্ধান শেষে দুদক পরিমল কুমার কুরীর সম্পদ বিবরণী নোটিশ জারির সুপারিশ করে প্রতিবেদন দাখিল করে দুদক। 

পরে দুদকের আদেশে আসামী পরিমল কুমার কুরী দুর্নীতি দমন কমিশনে তার সম্পদ বিবরণী দাখিল করেন। পরে তা যাচাই করে ৩৬ লাখ ১২ হাজার ৬৭৯ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করে মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন পরিমল কুমার কুরী। এছাড়া ৫০ লাখ ৪৩ হাজার ৫১৬ টাকার সম্পদ অর্জনের উৎসের সন্ধান তিনি দিতে পারেনি। অবৈধভাবে এ সম্পদ অর্জনের অপরাধেও তিনি অভিযুক্ত হন। 

এরপর তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের সহকারী পরিচালক আমির হোসাইন তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার সুপারিশ করেন। সোমবার মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলাটি মহানগর দায়রা জজ আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

মামলার বাদী আমির হোসাইন আরো জানান, একই অপরাধে তার স্ত্রী সোমা সাহার নামেও আলাদা আরেকটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। 

প্রকৌশলী পরিমল কুমার কুরী সমকালকে বলেন, ‘চার বছর আগে দুদক তথ্য চেয়েছিলো। আমি তথ্য দিয়েছি। আমার আয়কর, ব্যাংক হিসেব যা ছিলো সবই দুদককে দিয়েছি। তারা কোথায় এসব তথ্য পেলো তা জানিনা। যারা খাইতে পায় না, পড়তে পারে না তাদের বিরুদ্ধে ভুয়া তথ্যে মামলা। আর যারা অট্টলিকা গড়েছেন, তাদের নামে মামলা হয় না।’