আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ঢাকা মহানগর ১৪ দলের সমন্বয়ক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেছেন, বাঙালি জাতির আত্মমর্যাদা ও সক্ষমতার প্রতীক স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে ষড়যন্ত্র চলছে। যেকোন ষড়যন্ত্র সরকার কঠোর হস্তে দমন করবে। ঢাকা মহানগরে ১৪ দলের নেতাকর্মীদের সতর্ক থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর তোপখানা রোডের ওয়ার্কার্স পার্টি কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর ১৪ দলের সভায় মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বিএনপি-জামায়াতের কটুক্তি ও হত্যার হুমকির প্রতিবাদে ১৪ দলের প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশ সফল করতে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, ১৪ দল রাজপথে লড়াই করে বিএনপি-জামায়াতকে ক্ষমতাচ্যুত করেছিল। আজ ১৪ দল ক্ষমতায় রয়েছে। ১৪ দল বিএনপি-জামায়াতের যেকোনো ষড়যন্ত্র কঠোর হস্তে দমন করতে বদ্ধপরিকর।

সভায় নেতারা বিএনপি-জামায়াতের সকল ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে আগামী ১৮ জুন বিকেল তিনটায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ১৪ দলের সমাবেশকে সর্বাত্মক সফল করার আহবান জানান।

ওয়ার্কার্স পার্টির ঢাকা মহানগর সভাপতি আবুল হোসাইনের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহদাত হোসেন, বাসদের আহবায়ক রেজাউর রশীদ খান, সাম্যবাদী দলের পলিটব্যুরোর সদস্য ধীরেন সিংহ, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সহ-সভাপতি শফিউদ্দিন মোল্লা, জাতীয় পার্টি-জেপি'র প্রেসিডিয়াম সদস্য এজাজ আহম্মেদ মুক্তা, তরীকত ফেডারেশনের যুগ্ম মহাসচিব মুহাম্মদ আলী ফারুকী, মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কিশোর রায়, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন, শ্রমবিষয়ক আবুল কালাম আজাদ, গণতান্ত্রিক মজদুর পার্টির মহানগর নেতা শামিম আরা, গণ আজাদী লীগের মহানগর নেতা মাহবুবুল ইসলাম প্রমুখ।