নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, ব্যাংকগুলোকে জ্বালানি খাতে ঋণ দেওয়ার সুপারিশ করে সরকার আরেক দফা লুটপাট করার পাঁয়তারা করছে। ডলার সংকটের কারণে টাকা বিদেশে পাচার হয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী বলছেন, যুদ্ধের কারণে জ্বালানি সংকট, আসলে তা নয় বরং অপরিকল্পিত সিদ্ধান্তেই এই সংকট।

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নাগরিক ঐক্য আয়োজিত দুর্বিষহ লোডশেডিং, দ্রব্যমূল্যের সীমাহীন ঊর্ধ্বগতি, সন্ত্রাস, দুর্নীতি আর লুটপাটের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মিছিলের আগে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মান্না বলেন, সরকার বলছে দেশে ৪০ বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ আছে। তাহলে আইএমএফের কাছে কেন ঋণ চাওয়া হচ্ছে। এখন তো সরকার ডলারের অভাবে গ্যাসও কিনতে পারছে না তারা। আমাদের দেশেও গ্যাস আছে কিন্তু সেই গ্যাস উত্তোলনের উদ্যোগ নেয়নি সরকার। কারণ তাদের উদ্দেশ্য বাইরে থেকে কিনবে আর কমিশন খাবে।

তিনি আরও বলেন, সরকার ১০ কোটি টাকা খরচ করে হাতিরঝিলে শতভাগ বিদ্যুৎ উৎসব করেছিল। তখন বলেছিল, আমরা লোডশেডিংকে মিউজিয়ামে পাঠিয়ে দিয়েছি। কিন্তু আজ সারাদেশে লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ মানুষ। এখন মন্ত্রীরা কথা বলতে ভয় পান, সচিবরা কথা বলেন।

সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ ও নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ্‌ কায়সার।