'দুঃশাসনের' অবসান ও ভোটাধিকারের দাবিতে জোর লড়াইয়ের প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য দলের নেতাকর্মী ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)। নেতারা বলেন, সিপিবি দ্বাদশ কংগ্রেস যে পথের নির্দেশনা দিয়েছে, সে পথে চলমান দুঃশাসনের অবসান ও ব্যবস্থা বদলের সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে। দুঃশাসনের অবসান ঘটাতে গণআন্দোলন, গণসংগ্রাম গড়ে তুলতে নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

শুক্রবার রাজধানীর পুরানা পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সিপিবির জাতীয় পরিষদের সভায় এ আহ্বান জানানো হয়। সিপিবি সভাপতি মোহাম্মদ শাহ আলমের সভাপতিত্বে সভায় রাজনৈতিক ও করণীয়বিষয়ক রিপোর্ট উত্থাপন করেন দলের সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স। সাংগঠনিক কার্যক্রমের রিপোর্ট উত্থাপন করেন দলের সহকারী সাধারণ সম্পাদক কমরেড মিহির ঘোষ। শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন রেজা। বক্তব্য দেন দলের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য সহিদুল্লাহ চৌধুরী ও সাবেক সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিমসহ জাতীয় পরিষদ সদস্যরা।

সভায় বলা হয়, দেশে সাধারণ মানুষের সংকট চলছে দীর্ঘদিন ধরে। ক্ষমতাসীনরা মানুষের সংকট লাঘবে নতুন করে বিশেষ কোনো ভূমিকা না নিয়ে মানুষকে উপহাস করে চলেছে। মানুষের ক্ষোভ দমনে ভয়ের রাজত্ব চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে ভোট ও ভাতের দাবিতে সামনের কাতারে থেকে লড়াই করতে হবে। এ লক্ষ্যে সব স্তরের কর্মী-সমর্থকদের সক্রিয় করে শ্রেণি আন্দোলন, গণআন্দোলন গড়ে তুলতে স্থানীয় ও জাতীয় ইস্যুকে সামনে আনতে হবে।

সভায় বাম গণতান্ত্রিক বিকল্প শক্তি সমাবেশ গড়ে তুলতে বাম জোটের কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখার পাশাপাশি অন্যান্য বাম গণতান্ত্রিক প্রগতিশীল শক্তিকে এ জোটে সমবেত করতে উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়। এতে চলতি বছরের আগস্ট-সেপ্টেম্বরের মধ্যে জেলা-উপজেলা-শাখা নেতৃত্বের সাংগঠনিক কর্মশালা, আগস্ট-সেপ্টেম্বর-অক্টোবর পর্যন্ত জেলা-উপজেলা সদর এবং আগামী নভেম্বরে জাতীয় সমাবেশের দিকে অগ্রসর হওয়ার প্রস্তুতি নিতে সারাদেশের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।