সরকারকে আর সময় দেওয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘গণতন্ত্র ধ্বংস করে আওয়ামী লীগ গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে। জনগণের ঐক্য গড়ে রাজপথ দখলে নিয়ে এদের পরাজিত করতে হবে।’

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে স্বেচ্ছাসেবক দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘এত চ্যালেঞ্জ করবেন না। ক্ষমতা ছেড়ে রাস্তায় নামুন, তখন দেখা যাবে জনগণের শক্তি বেশি, না আপনাদের মতো দুর্নীতিবাজদের শক্তি বেশি। ক্ষমতায় থেকে অনেক লম্বা লম্বা কথা বলা যায়। ক্ষমতা ছেড়ে এলে বোঝা যাবে আপনাদের শক্তি কত, এ দেশে ক'জন আপনাদের পক্ষে?’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের অনেক কথা বলেন, সারাক্ষণ গালাগাল করেন। আপনারা দক্ষ হলে প্রতিদিন সড়কে এত মানুষ কেন মারা যাচ্ছে? দেশে কোথাও সুশাসন নেই, যে যেখানে পারছে লুটপাট করছে, দুর্নীতি করছে। এই সরকার দুর্নীতিবাজ, চোর-ডাকাতের সরকার। রাতের নির্বাচনে জোর করে বসে আছে। ব্যাংক ও অর্থনীতিকে ফোকলা করে ফেলেছে।’

জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেটের বিবৃতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘মিশেল ব্যাচেলেট পরিস্কার করে বলেছেন- এখানে র‌্যাবের হাতে যে গুম হয়েছে, মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে, তার সব প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। এটার বিচার করা দরকার। তাদের অবশ্যই স্বাধীন তদন্তের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। তাঁর এই কথার পর ক্ষমতাসীনদের শরীরে যেন বিছুটি লেগেছে। তথ্যমন্ত্রী তাঁকে সবক দিচ্ছেন, 'আপনি প্যালেস্টাইন-বার্মা দেখেন।' আরে বাংলাদেশে আপনারা কত হাজার মানুষকে হত্যা-গুম করেছেন, কেন তারা সেটি দেখবে না?’

স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজের সঞ্চালনায় সভায় বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, যুবদলের সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, মোনায়েম মুন্না, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁঁইয়া জুয়েল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এর আগে সকালে শেরেবাংলা নগরে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।