মসিউর রহমানের (রাঙ্গা) পর এবার সাবেক সংসদ সদস্য জিয়াউল হককে (মৃধা) জাতীয় পার্টি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তিনি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ছিলেন।

শনিবার সন্ধ্যায় জিয়াউল হককে উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যসহ দলীয় সব পদ-পদবী থেকে অব্যাহতি দেন দলটির চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

এদিন গণমাধ্যমে পাঠানো জাতীয় পার্টির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অব্যাহতির আদেশ কার্যকর করা হয়েছে।

জিয়াউল হক ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসন থেকে দুবার সংসদ সদস্য হয়েছিলেন।

সম্প্রতি জাতীয় পার্টির সম্মেলন আহ্বান করেন থাইল্যান্ডে চিকিৎসাধীন দলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ। এসময় রওশন এরশাদের পক্ষে অবস্থান নিয়েছিলেন জিয়াউল হক। তাকে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক করেছিলেন রওশন এরশাদ।

এদিকে সম্মেলন আহ্বানের জেরে রওশন এরশাদকে জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার পদ থেকে সরাতে স্পিকারের কাছে আবেদন করেছে জাতীয় পার্টি। তার জায়গায় জি এম কাদেরকে বিরোধীদলীয় নেতা করার প্রস্তাব দিয়েছে দলটি।

এ নিয়ে মতভিন্নতার জের ধরে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমানকে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যসহ সব পদ থেকে অব্যাহতি দেয় জাতীয় পার্টি।