নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে মো.মোশারফ হোসেন ভূইয়া নামের এক দলিল লেখকককে বালতির পানিতে চুবিয়ে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার রাতে কাঁচপুর ইউনিয়নের খালপাড় চেঙ্গাইন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রোববার দুপুরে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী শাহিনুর আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নিহত মো.মোশারফ হোসেন ভূইয়া উপজেলার কাঁচপুর ইউনিয়নের খালপাড় চেঙ্গাইন গ্রামের আব্দুল কাদির ভূইয়ার ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়,নিহতের স্ত্রী জানিয়েছেন শনিবার রাত ২ টার দিকে ৩-৪ জনের একটি ডাকাত দল তার বাড়িতে প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে তাকে জিম্মি করে তার স্বামী মো.মোশারফ হোসেন ভূইয়াকে বাথরুমে নিয়ে বালতির পানিতে চুবিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যায়। ঘটনাটি জানাজানি হলে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে গিয়ে ডাকাতির কোন আলামত না পেয়ে পুলিশের সন্দেহ হয়। পরে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে নিহতের ন্ত্রী শাহিনুর আক্তারকে আটক করে পুলিশ।

এলাকাবাসীর দাবি, নিহতের স্ত্রী প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে তার স্বামীকে লোক ভাড়া করে হত্যা করে ডাকাতির ঘটনা বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। তাদের দাবি, নিহতের স্ত্রী নিজের প্রেম আড়াল করতে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটিয়েছে। প্রেমের কারণে আগেও একাধিক ছেলের সঙ্গে নিহতের স্ত্রী পালিয়ে গেছেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

সোনারগাঁ থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, নিহতের বাড়ি পরিদর্শন করে ডাকাতির কোন আলামত পাওয়া যায়নি। স্ত্রীর প্রেমের কারণে এ হত্যাকাণ্ড হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে নিহতের স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে। সোমবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান পুলিশের এই কমকর্তা।