বগুড়ায় নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা বলেছেন, আগের কমিশনার কী করেছে, কী করা উচিত ছিল তা টেনে আনবেন না। পেছনের বিষয় শেষ হয়ে গেছে। এখন আমরা কী করি সেটা দেখেন। আমাদের কমিশনের সময় যে কয়টা নির্বাচন হয়েছে সে নির্বাচন নিয়ে কেউ কোনো অভিযোগ তুলতে পারেনি। আমরা সর্বমহলে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে সক্ষম হয়েছি। সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে। শুক্রবার দুপর ১২টায় বগুড়া সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের বিফ্রিংয়ে এ কথা বলেন তিনি।

জাতীয় সংসদে ১৫০ আসনে ইভিএমএ ভোট গ্রহণে কমিশনের সিদ্ধান্তের বিষয়ে রাশেদা সুলতানা বলেন, আমাদের একসঙ্গে ৩০০ আসনে ইভিএমএ ভোট করার সক্ষমতা হয়নি। টেকনিক্যাল লোকবল অভাব রয়েছে। ইভিএম মেশিনও নেই। যার কারণে ১৫০টির বেশি আসনে ইভিএমে ভোট নেওয়া সম্ভব হবে না। ইভিএমের মাধ্যমে ফলাফল পাল্টে দেয়ার কথা অযৌক্তিক। আমরা সব দলকে আহ্বান জানিয়েছে ইভিএমের ত্রুটি ধরিয়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু কেউ ধরতে পারেননি।

রাশেদা সুলতানা বলেন, কোন দল নির্বাচনে আসলো, কোন দল আসলো না সেটা মুখ্য বিষয় নয়। আমরা রাষ্ট্র ও জনগণের স্বার্থে নির্ধারিত সময়ে নির্বাচন সম্পন্ন করে সংবিধান রক্ষা 

 করবো। তবে আমরা শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত চেষ্টা করবো সব দলকে নির্বাচনমুখী করতে।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন বগুড়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সালাহ্‌ উদ্দিন আহম্মেদ, পুলিশ সুপার সুবীর কমুার চক্রবর্তী, জেলা সিনিয়র নির্বাচন অফিসার মাহমুদ হাসান, অতিরিক্ত জেলা নির্বাচন অফিসার নজরুল ইসলাম প্রমুখ। এর আগে রাশেদা সুলতানা জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের সঙ্গে ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।