জাতীয়তাবাদী যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু বলেছেন, এই সরকারকে অনেক সময় দেওয়া হয়েছে। তারা প্রতিদিনই আমাদের কোনো না কোনো ভাইয়ের রক্ত ঝড়াচ্ছে, হত্যা করছে, মিথ্যা ও গায়েবি মামলা দিচ্ছে। এভাবে আর চলতে দেওয়া যায় না। তাই এখন থেকে পাল্টা প্রতিরোধ শুরু করতে হবে। যেখানেই হামলা সেখানেই লড়াই করতে হবে।

বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক বিক্ষোভ মিছিল শেষে তিনি এসব কথা বলেন। নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ওপর হামলার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

টুকু বলেন, গত জুলাই থেকে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন জনইস্যুতে বিএনপি শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছে। এরপরও তাদের ওপর হামলা করা হচ্ছে, হত্যা করা হচ্ছে। সারাদেশে নয়জন নেতাকর্মীকে হত্যা করেছে এই ফ্যাসিবাদী সরকার। এখন সময় এসেছে ঘুরে দাঁড়াবার। সবাইকে সেই প্রস্তুতি নিয়ে রাজপথে থাকতে হবে, নামতে হবে।

যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোনায়েম মুন্না বলেন, সরকার ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাইছে। তারা মনে করছে, হামলা-মামলা করে বিএনপিকে দুর্বল করা যাবে। কিন্তু বিএনপি ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এখন থেকে প্রতিটি হামলার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেওয়া হবে।

মিছিলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্যসচিব রফিকুল আলম মজনু, যুবদলের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি নূরুল ইসলাম নয়ন, যুগ্ম সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মিল্টন, গোলাম মাওলা শাহীন, দক্ষিণ যুবদলের সদস্যসচিব খন্দকার এনামুল হক এনাম, উত্তরের সদস্যসচিব জগলুল পাশা পাপেলসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।