কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে একটি মামলার এজাহারভুক্ত আসামি গ্রেপ্তার করতে গেলে পুলিশ-বিএনপি সংঘাতে চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৭ বিএনপি নেতাকে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ৮০ জনের নামে মামলা করেছে।

শনিবার (৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার দিকে খোররমকে নতুন বাজার এলাকায় সংঘাতের এ ঘটনা ঘটে। 

গ্রেপ্তাররা হলেন- মোস্তফা সারোয়ার সুমন (৪৩), রিপন মাস্টার (৪৫), বিল্লাল হোসেন (২৩), তানভীর হাসান রানা (৩৩), নাঈম (১৭), শাহ আলম (৩৪) ও সোহরাব উদ্দিন (৫৬)। 

হোসেনপুর থানার ওসি মো. মাসুদ আলম জানান, এক ব্যক্তির পায়ের রগ কেটে দেওয়ার মামলায় বিএনপি নেতা খোররম ও তার ভাই জলিল এজাহারভুক্ত আসামি। জলিল আগেই গ্রেপ্তার হয়েছেন। সন্ধ্যার দিকে খোররমকে নতুন বাজার এলাকায় গ্রেপ্তার করতে গেলে সেখানে বিএনপি অফিসে সভা করতে থাকা বিএনপির সদস্যরা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল ও পটকা নিয়ে হামলা চালান। এ সময় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। হামলায় পুলিশের গাড়ির কাঁচ ভেঙে গেছে।

তিনি বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ১৯ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করেছে। 

এ ঘটনায় এসআই ফজলুল হক বাদী হয়ে গ্রেপ্তারকৃত ৭ জনসহ  বিএনপির ২০ জনের নামোল্লেখ করে এবং আজ্ঞাতনামা আরও ৫০-৬০ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য জেলা বিএনপির সভাপতি শরীফুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলামের মোবাইলে ফোন করলে বন্ধ পাওয়া যায়।