সিএনজিচালিত অটোরিকশার মাধ্যমে সংঘঠিত বিভিন্ন অপরাধ উদঘাটন ও নিয়ন্ত্রণে তৎপর হয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ-সিএমপি।

মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রামের জিইসি মোড়ের একটি কনভেনশন সেন্টারে ট্রাফিক সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করতে এসে এ কথা জানিয়েছেন সিএমপি কমিশনার সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর। 

‘ট্রাফিক আইন মেনে চলুন, নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করুন’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে এই ট্রাফিক সেবা সপ্তাহ। 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিএমপি কমিশনার সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর জানান, ট্রাফিক সেবা সপ্তাহে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ‘আমার গাড়ি নিরাপদ’ কর্মসূচিকে গুরুত্ব দেওয়া হবে। এই কর্মসূচির লক্ষ্য হচ্ছে, সিএনজি অটোরিকশাকে নারী ও শিশুসহ সবধরণের যাত্রীদের জন্য দিন-রাত সবসময়একটি নিরাপদ বাহন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা। 

তিনি বলেন,যাত্রীদের অনেক মূল্যবান সামগ্রী গাড়িতে ফেলে আসেন। গাড়িতে উঠার আগে যাত্রীরা গাড়িতে থাকা কিউআর কোডটি স্ক্যান করে রাখলে পরবর্তীতে সহজেই অটোরিকশাটি খুঁজে পাওয়া সম্ভব হবে। যাত্রী ও চালকের মধ্যে একটি আস্থার সম্পর্ক তৈরি হবে। মালিকদের কাছেও চালকদের সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট তথ্য থাকবে।’

তিনি বলেন, ‘এই প্রক্রিয়ায় সিএনজিচালিত অটোরিকশার মাধ্যমে সংঘঠিত বিভিন্ন অপরাধ সহজেই উদঘাটন ও নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।’ 

সিএমপির কর্মকর্তারা জানান, প্রাথমিকভাবে নগরের আটটি বুথে সিএনজি অটোরিকশা চালক ও মালিকদের নিবন্ধন করা হবে। নিবন্ধনের আগে তাদের বৈধ কাগজপত্র যাছাই করা হবে। 

নিবন্ধনের তথ্য সিএমপির সার্ভারে জমা হওয়ার পর সার্ভার থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মালিক এবং চালকের জন্য আলাদা আলাদা একটি ইউনিক কিউআর কোড এবং নিউম্যারিক আইডি প্রস্তুত হবে। আইডি ও কিউআর কোড সম্বলিত একটি প্রিন্টেড কপি প্রতিটি গাড়ির মালিক ও চালককে দেওয়া হবে। প্রিন্ট কপিটি গাড়িতে যাত্রীদের দৃষ্টিগোচর হয় এমন স্থানে ঝুলিয়ে রাখবেন চালকরা। 

ইতোমধ্যে ১২ হাজার সিএনজি অটোরিকশার নিবন্ধন শেষ হয়েছে বলে সিএমপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) শ্যামল কুমার নাথ জানান, ট্রাফিক সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে ট্রাফিক নির্দেশনা সম্বলিত লিফলেট পথচারীদের মাঝে বিতরণ করা হবে। একই সঙ্গে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদেরকে নিরাপদ সড়ক আইন সম্পর্কে সচেতন করা হবে। প্রতিটি মোড়ে মোড়ে ট্রাফিক সার্জেন্ট ও পরিদর্শকরা সতর্কীকরণ নির্দেশনাবলী চালক ও যাত্রী সাধারণকে ব্রিফিং করবেন। 

সপ্তাহব্যাপী নগরের প্রতিটি এলাকার একটি গাড়ির মাধ্যমে সচেতনতা মাইকিং করা হবে।

অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) মো. শামসুল আলমসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।