নারায়ণগঞ্জে মন্দির পটুয়াখালীতে হিন্দুবাড়ির বিয়েতে হামলা

২২ জানুয়ারি ২০১৪

সমকাল ডেস্ক
নাচতে না দেওয়ার জের ধরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সাওঘাট মন্দিরে হামলা চালিয়ে ৪টি প্রতিমা ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। অন্যদিকে দাওয়াত না দেওয়ায় পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় এক হিন্দু বাড়ির বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এছাড়া ঝালকাঠির রাজাপুরে হিন্দু বাড়িতে অগি্নসংযোগ করা হয়েছে।
নারায়ণগঞ্জ/রূপগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, কালীপূজার উৎসবে নাচতে না দেওয়ার জের ধরে জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার সাওঘাট মন্দিরে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে প্রতিমা ভাংচুর করে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার রাত ৯টার দিকে সাওঘাট পশ্চিম মনিপাড়া মন্দিরে কালীপূজার উৎসব চলছিল। এ সময় ফারুক মিয়া, রোমান মিয়া, রহমান, পাবেল মিয়া, আল-আমিন, শান্ত, পনিরসহ ২০-৩০ জন স্থানীয় সন্ত্রাসী ওই পূজামণ্ডপে যায়। তারা ওই উৎসবে জোর করে নাচতে গেলে পূজা কমিটির সদস্য বাদল বাধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীরা বাদল ও নয়ন নামে দু'জনকে পিটিয়ে আহত করে। এক পর্যায়ে তারা খাবার (প্রসাদ) নষ্ট করে। পরে সন্ত্রাসীরা মন্দিরের ভেতরে প্রবেশ করে ৪টি প্রতিমাসহ ডেকোরেটর, প্রতিমার আসবাবপত্র, লাইট ভাংচুর করে। খবর পেয়ে ভুলতা ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে দুর্বৃত্তরা পলিয়ে যায়। এ সময় পুলিশ পনির হোসেন, শরিফ ও আপেল নামে তিন সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করে। তাণ্ডব চলাকালে বাদল দাস, নয়ন, রাজকুমারসহ ৯ জন আহত হন। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। রূপগঞ্জ থানার ওসি আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।
কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি জানান, বিয়েতে দাওয়াত না দেওয়ায় হিন্দু বাড়ির বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলা ও ভাংচুর চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। স্থানীয় চিহ্নিত সন্ত্রাসী সালাউদ্দিন, মামুন ও বাবুর নেতৃত্বে ৭-৮ জনের একদল সন্ত্রাসী এ হামলা চালায়। মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের মিঠাগঞ্জ গ্রামের অমল দাসের বাড়িতে সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। জেনারেটর বন্ধ করে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সন্ত্রাসীদের তাণ্ডবে দাওয়াতে আসা হিন্দু নারী-পুরুষদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। প্রায় তিন ঘণ্টা পর পুলিশের উপস্থিতিতে বিয়ে সম্পন্ন হয়। পুলিশ এ ঘটনায় বাবুকে আটক করেছে।
কনের কাকাতো ভাই নিখিল দাস ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিঠাগঞ্জ গ্রামের অমল দাসের মেয়ে অনামিকার সঙ্গে কাঠালিয়া উপজেলার রিপন দাসের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হলে হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। সন্ত্রাসীদের হামলায় নিখিল চন্দ্র শীল, পরিমল দাস ও শহিদ আহত হন।
কলাপাড়া থানার ওসি কেএম তারিকুল ইসলাম জানান, বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলার অভিযোগে একই এলাকার মোখলেছ খানের ছেলে বাবুকে আটক করা হয়েছে।
রাজাপুরে হিন্দু বাড়িতে অগি্নসংযোগের অভিযোগ
রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি জানান, ঝালকাঠির রাজাপুরের মধ্য মনোহরপুর গ্রামের বাসিন্দা নিতাই চন্দ্র বেপারীর ছেলে নিখিল চন্দ্র বেপারীর ঘরে গতকাল সোমবার গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা কেরোসিন দিয়ে অগি্নসংযোগ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রতিবেশী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সঞ্জীব কুমার বিশ্বাস ও নিখিল চন্দ্র বেপারী অভিযোগ করেন, রাতে ঘরের দক্ষিণ পাশের বারান্দার পাশে রাখা জ্বালানি কাঠে দুর্বৃত্তরা কেরোসিন দিয়ে অগি্নসংযোগ করে। এতে বৈদ্যুতিক মিটারে ছ্যাকা লাগে এবং ঘরের মাচানের চান্দিনা পুড়ে যায়। নিখিলের ভাই উজ্জ্বল রাতে ঘুম থেকে জেগে আগুন দেখে চিৎকার শুরু করলে ঘরের লোকজন ও স্থানীয়রা আগুন নিভিয়ে ফেলে।
সুন্দরগঞ্জে সংখ্যালঘুর খড়ের গাদায় অগি্নসংযোগ
সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি জানান, সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের চাচীয়া মীরগঞ্জ গ্রামের রণজিৎ সাহার খড়ের গাদায় অগি্নসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা। জানা গেছে, গত সোমবার দিবাগত রাতে কে বা কারা তার খড়ের গাদায় আগুন লাগিয়ে দেয়। বাড়ির মালিকের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: [email protected] (প্রিন্ট), [email protected] (অনলাইন)