শাড়ির পাশে পাঞ্জাবি

০৯ জুলাই ২০১৪

পাঞ্জাবির সঙ্গে শাড়ি না হলে কি মানায়! তাই শাড়ির সাথেই আপ-টু-ডেট থাকা চাই পাঞ্জাবির দরদামেও। সব হাউসের শাড়ি আর পাঞ্জাবির এক ঝলক নিয়ে আয়োজন...

এড্রয়েট
ঈদকে সামনে রেখে তাই এড্রয়েট হাজির হয়েছে ব্যতিক্রম ডিজাইন নিয়ে। বর্ষা ও গরমকে মাথায় রেখে কটনকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। এবার শাড়িতে রয়েছে ব্যতিক্রম আয়োজন। শাড়ির মধ্যে পাবেন জামদানি, সুতি, সিল্ক। এতে রয়েছে ব্লক, এমব্রয়ডারি, মেশিন এমব্রয়ডারি, স্প্রে, অ্যাপ্লিক, টাইডাই, হাতের কাজ। ছেলেদের পাঞ্জাবিতেও আনা হয়েছে পরিবর্তন। শট পাঞ্জাবি ছাড়াও থাকছে লং পাঞ্জাবি। বিভিন্ন কাজের এসব পোশাকের দাম পড়বে সুতি শাড়ি ৮৯০-৩৫০০, সিল্ক শাড়ি ১৯০০-৮৫০০, জামদানি শাড়ি ৩৫০০-২০,৫০০ টাকা। পাঞ্জাবিতে সুতি ৭৫০-১৮০০, পাঞ্জাবি সিল্ক ১৫৫০-৪৫০০ টাকা।
অহং
ঐতিহ্য আর আধুনিকতার সঙ্গে এথনিক আভিজাত্য বরাবরই প্রাধান্য পায় অহংয়ের পোশাকে। এবারের ঈদ মৌসুমে অহং এনেছে অনেক ধরনের কালেকশন। এর মধ্যে অন্যতম শাড়ি ও পাঞ্জাবি। চিফ ডিজাইনার মারজান হাদি ঝুমা জানান, প্যাটার্ন এবং গর্জাস ডিজাইনের ভিন্নতায়, অহং এনেছে রঙ বৈচিত্র্যের ঈদ আয়োজন। যারা ঈদে সিগনেচার কালেকশন পরতে অভ্যস্ত তাদের জন্য অহং হতে পারে বেস্ট ফ্যাশন আউটফিট! শাড়ির কাজে আনা হয়েছে ভিন্ন কম্বিনেশন। এ ছাড়া ছেলেদের জন্য রয়েছে পাঞ্জাবির কালেকশন।
চরকা
ফ্যাশন হাউস চরকার এবারের ঈদ কালেকশনে এনেছে নতুনত্ব আর ব্যতিক্রমধর্মী ডিজাইনের পোশাক। কাটিং ও প্যাটার্নের ভিন্নতা ব্যতিক্রমধর্মী প্যাঁচওয়ার্কের মাধ্যমে তৈরি করা হয়েছে এবারের পোশাকগুলো। এবার মেয়েদের শাড়ি ডিজাইনে আনা হয়েছে ভেরিয়েশন। রঙ হিসেবে প্রাধান্য পেয়েছে সবুজ, টিয়া, পেস্ট, গোলাপি, বেগুনি, কালো ইত্যাদি রঙ। শাড়িতে হাফসিল্ক, মসলিন, কোটা ইত্যাদি প্রাধান্য পেয়েছে। ডিজাইনের ক্ষেত্রে প্রাধান্য পেয়েছে মিশ্র মাধ্যম ও প্যাঁচওয়ার্ক। অন্যদিকে ছেলেদের জন্য স্লিম ফিট পাঞ্জাবি ও লং পাঞ্জাবি করা হয়েছে এবার ঈদে। থাকবে শিশুদের জন্যও পাঞ্জাবি। উজ্জ্বল আর উৎসবধর্মী রঙ ব্যবহৃত হয়েছে এ পোশাকগুলোতে। এসব পোশাক পাবেন ৪০০-১০ হাজার টাকা পর্যন্ত।
ফড়িং
প্রতিটি উৎসবকে ঘিরে ফড়িং তার শোরুমগুলো সাজানো হয় উৎসবধর্মী পোশাক দিয়ে। সামনে ঈদ, ঈদকে সামনে রেখে ফ্যাশন হাউস ফড়িং তার পোশাকে ব্যাপক আয়োজন করেছে। শাড়ি ও পাঞ্জাবিতে কাজ করা হয়েছে এমব্রয়ডারি, অ্যাপ্লিক, ব্লক, হাতের কাজ, স্প্রে, হ্যান্ডপেইন্ট, টাইডাই প্রভৃতি।
কারুপল্লী
বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড পরিচালিত হস্ত ও কুটির শিল্পের প্রতিষ্ঠান কারুপল্লী এনেছে ঈদের পোশাক। এসব পোশাকের মধ্যে আছে শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, ফতুয়া, পাঞ্জাবি ও শিশুদের পোশাক। কারুপল্লীর বিক্রয় কেন্দ্র আছে কারওয়ান বাজারের পল্লী ভবনের নিচতলায়।
লাল সাদা নীল হলুদ
ফ্যাশন হাউস লাল সাদা নীল হলুদের ঈদের বিশেষ আয়োজনে থাকছে মেয়েদের জন্য শাড়িতে এবং ছেলেদের পাঞ্জাবি। পোশাকে প্রাধান্য পেয়েছে লাল, সবুজ, মেরুন, পার্পেল, পিকক ব্লুসহ উৎসবধর্মী রঙ। ব্যবহার করা হয়েছে সুতি, তাঁত, লিলেন, হাফ সিল্ক আর মসলিন কাপড়। ডিজাইনে করা হয়েছে ভারী মেশিন এমব্রয়ডারি, কারচুপি, ব্লক, টাইডাইসহ বিভিন্ন মাধ্যমের কাজ।
ঈদে মেঘ
ফ্যাশন হাউস মেঘে এসেছে ঈদের পোশাক। রঙে ও নকশায় এসব পোশাকে আনা হয়েছে ভিন্নতা। তাদেরও শাড়ি ও পাঞ্জাবিতে আনা হয়েছে ভিন্নতা। মোটিফেও আনা হয়েছে পরিবর্তন।
নিপুণ ক্রাফটস লিমিটেড
আসন্ন ঈদ মূলত গরম আবহাওয়া ও বর্ষাও কথা বিবেচনায় রেখে সুতির পোশাকের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ঈদেও উৎসবময়তাকে সামনে রেখে রঙ ও ধরনের বৈচিত্র্যও আনা হয়েছে নিপুণের পোশাকে। তবে পোশাকে মেজেন্ডা, গ্রিন, ব্লু, পারপেল রঙের প্রাধান্য বেশি। পাশাপাশি রিবসের কাজও এসেছে নতুনভাবে। শাড়ির ক্ষেত্রে মসলিন, হাফসিল্ক, সুতির ওপর স্ক্রিন প্রিন্ট, এমব্রয়ডারি ও ব্লক দিয়ে কম্বিনেশন করা হয়েছে। ছেলেদের পোশাকের ক্ষেত্রে পাঞ্জাবিতে এমব্রয়ডারির মাধ্যমে বিভিন্ন মোটিফের ব্যবহার করা হয়েছে।
সাদাকালো
ঈদে সাদাকালো নিয়ে এসেছে শাড়ি ও পাঞ্জাবির নতুন কালেকশন। যেখানে হাতের কাজ, সাদাকালো প্রকৃত হাতের কাজে প্রাধান্য দিয়েছে। তবে স্ক্রিন এবং ব্লক প্রিন্টে কাজ করেও সূচিকর্ম মোটিফ ফুটিয়ে তুলেছে। সব সময়ের মতো এই মোটিফেও থাকছে যুগল পোশাক, বাবা-ছেলে, মা-মেয়ে একই রকম পোশাক।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)