অ্যান্ডারসনে গর্বিত ম্যাকগ্রা

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক

জেমস অ্যান্ডারসনের গুড লেন্থের বলটা যেন বুঝতেই পারলেন না মোহাম্মদ শামি। ব্যাট-প্যাডের ফাঁক দিয়ে ঢুকে বলটা যেন ছোবল দিল মিডল স্টাম্পে। শামি আউট, ভারত অলআউট। পাঁচ ম্যাচ সিরিজের শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ড পেল নিজের চতুর্থ জয় আর অ্যান্ডারসন পেলেন টেস্টে নিজের ৫৬৪তম উইকেটের দেখা। সেই সঙ্গে গ্লেন ম্যাকগ্রাকে পেছনে ফেলে হয়ে গেলেন টেস্টে পেসারদের মধ্যে সর্বোচ্চ উইকেটের মালিক, পেস-স্পিন মিলিয়ে চতুর্থ সর্বোচ্চ। খেতাবটা অ্যান্ডারসনের কাছে হারিয়ে ম্যাকগ্রা অবশ্য একদমই অখুশি নন। বরং জানালেন, অ্যান্ডারসনের জন্য গর্ব অনুভব করেন তিনি।

টেস্টে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহকের তালিকায় অ্যান্ডারসনের সামনে এখন কেবল তিন স্পিনার মুত্তিয়া মুরালিধরন (৮০০), শেন ওয়ার্ন (৭০৮) ও অনীল কুম্বলে (৬১৯)। সে ক্ষেত্রে পেসার হিসেবে অ্যান্ডারসনের সামনে এখন কেবলই নিজেকে ছাড়ানোর চ্যালেঞ্জ। ম্যাকগ্রা মনে করেন, অ্যান্ডারসন তার উইকেট সংখ্যাটাকে অন্য পেসারদের জন্য অনেক দূরের এক পথ হিসেবেই রেখে যাবেন। বিবিসি রেডিওকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ম্যাকগ্রা বলেন, 'আমি হয়তো এই রেকর্ডটা আরও অনেক দিন ধরে রাখতে চাইতাম। কিন্তু জিমির মতো একজন বোলারের কাছে এই রেকর্ডটা খোয়ানো দারুণ এক ব্যাপার। আমি গর্বিত যে, সে এই জায়গাটাই পৌঁছুতে পেরেছে। তার পরের বোলারদের জন্য এই জায়গাটায় পৌঁছানো সহজ হবে না।'

২০০৫ সালে কোর্টনি ওয়ালশকে পেছনে ফেলে টেস্টে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি পেসারের রেকর্ডটা নিজের করে নিয়েছিলেন ম্যাকগ্রা। তার সেই রেকর্ডটা অ্যান্ডারসন ভাঙলেন ১৩ বছর পর। ম্যাকগ্রার মতে, অ্যান্ডারসনের রেকর্ড টিকে থাকবে আরও বেশি সময় ধরে, 'এই রেকর্ডটা আগামী ১০ বছর বা তারও বেশি সময় পর ভাঙাটাও সহজ হবে না। এরপর যে এটা ভাঙতে চাইবে, তাকে অনেকটা পথ পাড়ি দিতে হবে। এতগুলো বছর ধরে একইভাবে পারফর্ম করে যাওয়াটা সহজ নয়। জিমির জন্য আমার সত্যিকারের শ্রদ্ধা আছে।'

© সমকাল 2005 - 2019

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭ (প্রিন্ট পত্রিকা), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) । ইমেইল: ad.samakalonline@outlook.com