মাথা ন্যাড়া করে শাস্তি খেলোয়াড়দের

২৪ জানুয়ারি ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: টুইটার

খেলার মাঠে অনেক ধরণের কান্ড-কারবার দেখা যায়। অধিনায়ক, খেলোয়াড় কিংবা কোচরা ম্যাচ হারার পর রাগ-ক্ষোভ প্রকাশ করেন। হয়তো কোচরা মাঝে মধ্যে ছোট খাটো শাস্তি দেন খেলোয়াড়দের। একটু বেশি খাটিয়ে নেওয়া, নিয়ম-নীতিতে জোর দেওয়া ইত্যাদি করে থাকেন। কিন্তু কোচই যেন ভুলে গেলেন, খেলায় হার-জিত থাকবে। আর তাই দিলেন 'বড়' শাস্তি। শিষ্যদের মাথা ন্যাড়া করালেন তিনি।

ঘটনাটা অবশ্য কিছুদিন আগের। ভারতের জব্বলপুরে জাতীয় জুনিয়র হকি টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়েছিল। সেই টুর্নামেন্টে বাংলার জুনিয়র হকি খেলোয়াড়রা ভালো করতে পারেননি। আর তাই মাথা ন্যাড়া করার শাস্তি পেয়েছে তারা।

আর এ নিয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে। সেখানকার মানবাধিকার সংস্থা এনডিআর প্রশ্ন তুলেছে কোচের এমন ভূমিকা নিয়ে। বাংলার যুব হকি দলের কোচ প্রকাশ আনন্দ তরুণ এই হকি খেলোয়াড়দের মানসিক নিপীড়ন করেছেন বলে দাবি এনডিআরের।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, যুব হকি দলের কোচ আনন্দ প্রকাশ খেলোয়াড়দের বলেন, যে ন্যাড়া হবে না, তার জন্য রাজ্য দলের দরজা চিরতরে বন্ধ। কোচের কথা মতো তাই মাথা ন্যাড়া করেছেন প্রত্যেকে। এরপর গ্রুপ করে ছবি তুলে তারা কোচের কাছে পাঠিয়ে দেন।

মানবাধিকার সংস্থা এপিডিআর রাজ্যের মানবাধিকার কমিশনের কাছে এ নিয়ে চিঠি দিয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি তাদের। সংস্থার সভাপতি রঞ্জিত শূর বলেন, 'এটা কোচের বিকৃত মানসিকতা ও ক্ষমতা অপব্যবহারের প্রমাণ। রাজ্য হকি ফেডারেশনও এ নিয়ে তাদের দায়িত্ব এড়াতে পারেন না। ফেডারেশন কোচের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টো কোচকে আড়াল করেছে।'

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)