শিক্ষককে পেটালেন ইউপি চেয়ারম্যান

০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | Updated ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

ধনবাড়ীতে এক ইউপি চেয়ারম্যান শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করেছেন। বানিয়াজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলামকে ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল আলম তালুকদার বাবুল লাঞ্ছিত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় লাঞ্ছনার শিকার শিক্ষকের সহকর্মী ও স্থানীয়রা বিক্ষোভ করে বিচার চেয়ে বৃহস্পতিবার ইউএনওর কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন। এর আগে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক (ডিসি) বরাবরও এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। স্মারকলিপি দেওয়ার আগে সমাবেশে বক্তৃতা করেন সহকারী শিক্ষক হাবিবুর রহমান, আনোয়ারা বেগম ও দেলোয়ারা বেগম।

বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশপ্রহরী নুরুল ইসলামের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগবিধির শেষ ধাপ অতিক্রম হয়েছে গত ৭ জানুয়ারি। এ সময়ে বানিয়াজান ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল আলম তালুকদার বাবুলের ভাগ্নে চৌধুরী গোলাম মুক্তাদির ওরফে তানজিল বিদ্যালয়ের নির্মাণ কাজের বিদ্যুৎ লাইন থেকে অবৈধ সংযোগ নিয়ে নলকূপে পানি তুলতেন। নৈশপ্রহরী কাম দপ্তরি নুরুল ইসলাম বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অগোচরে বন্ধু তানজিল চৌধুরীকে সহযোগিতা করত। এ নিয়ে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে। স্কুল ক্যাম্পাসে নেশার আসর বসানোর অভিযোগও আছে নুরুলের বিরুদ্ধে। পূর্বাপর এমন নানা বিতর্কিত ও নেতিবাচক কাজে বিদ্যালয়ের এসএমসিসহ সংশ্নিষ্টরা নুরুল ইসলামের চাকরি নবায়নের সুপারিশ করেননি। এমনকি স্বপদে থাকতে নুরুল ইসলাম বিধিমতে আবেদনও করেনি। ফলে গত ৩১ জানুয়ারি সংশ্নিষ্টরা মিটিংয়ে তাকে নবায়নের সুপারিশ থেকে বিরত থাকেন। এ নিয়ে চেয়ারম্যান সামছুল আলম তালুকদার বাবুল গত ২ জানুয়ারি পরিষদে ডেকে নেন প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলামকে। তিনি নুরুল ইসলামের চাকরি নবয়ানের সুপারিশের ব্যবস্থা করতে বললে প্রধান শিক্ষক বিধিবিধানের বিষয় উল্লেখ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যান সামছুল তালুকদার বাবুল অনেকেরই সামনে প্রধান শিক্ষককে মারধর করেন। ইউএনও আরিফা সিদ্দিকা স্মারকলিপি পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।

© সমকাল 2005 - 2019

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭ (প্রিন্ট পত্রিকা), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) । ইমেইল: [email protected]