২১ দিন কাঁটাতারে অবরুদ্ধ পরিবার

চরফ্যাসন

১৬ মার্চ ২০১৯

চরফ্যাসন (ভোলা) প্রতিনিধি

চরফ্যাসনে ২১ দিন ধরে সেলিম দফাদারের পরিবার কাঁটাতারের বেড়ায় অবরুদ্ধ হয়ে আছে। এরপরও থেমে নেই প্রতিপক্ষ। পরিবারটির ব্যবহূত পুকুরে খোলা টয়লেট দেওয়া হয়। মারধর করা হয় সেলিমের স্ত্রী-কন্যাকে। ২১ দিন ধরে এমন মধ্যযুগীয় নির্যাতনের পর অভিযোগ করা হলেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। অবশেষে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা বিষয়টি পুলিশের নজরে দিলে দুলারহাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পুকুরে নির্মিত খোলা টয়লেট ভেঙে দিয়েছে। কিন্তু বহাল আছে বসতঘর ঘিরে কাঁটাতারের বেড়া। এ ব্যাপারে মামলা নেওয়া হয়নি। চরফ্যাসন উপজেলার দুলারহাট থানার চরনুরুল আমিন গ্রামের সেলিম দফাদারের পরিবারকে ঘিরে ঘটছে এমন নির্মমতা। যার নেপথ্যে রয়েছে বসতভিটা ও সংলগ্ন জমি জবরদখলের প্রচেষ্টা।

ভুক্তভোগী পরিবারের গৃহকত্রী রাশিদা বেগম জানান, গত মাসের (ফেব্রুয়ারি) ২৩ তারিখে প্রতিপক্ষ কাঞ্চন দফাদার লোকজন নিয়ে তার বসতঘরের চারপাশে কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে অবরুদ্ধ করে দেয়। এতে বাধা দিলে কাঞ্চন দফাদার ও তার লোকজন রাশিদা বেগম ও তার মেয়ে রুনাকে মারধর করে। এতে আহত রাশিদা ও রুনা চরফ্যাসন হাসপাতালে ভর্তি হন। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ করেন স্থানীয় দুলারহাট থানায়। ঘটনার পর রাশিদা দুলারহাট থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করলেও পুলিশ ব্যবস্থা নেয়নি। স্থানীয় চেয়ারম্যান আলমগীর হাওলাদার বিষয়টি সালিশে নিষ্পত্তির কথা বলে সময়ক্ষেপণ করেন। এ সুযোগে প্রতিপক্ষ রাশিদার ব্যবহূত পুকুরে খোলা টয়লেট স্থাপন করে। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে দুলারহাট থানা পুলিশ পুকুরের মধ্যে নির্মিত টয়লেট ভেঙে দিলেও বসতঘর ঘিরে নির্মিত কাঁটাতারের বেড়া অপসারণ কিংবা রাশিদার এজাহার গ্রহণে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

জানা গেছে, রাশিদার বসতঘর ও জমি নিয়ে তার দেবর নজরুল ও আব্দুর রবদের সঙ্গে বিরোধ চলছে। নজরুল-আব্দুর রবদের প্ররোচনায় কাঞ্চন দফাদার গং রাশিদাদের ওপর নির্যাতন করছে। অভিযোগ প্রসঙ্গে কাঞ্চন দফাদার বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

স্থানীয় চেয়ারম্যান আলমগীর হাওলাদার জানান, বিষয়টি সমঝোতার চেষ্টা চলছে।

দুলারহাট থানার ওসি মিজানুর রহমান পাটওয়ারী জানান, পুলিশ পুকুরে স্থাপন করা টয়লেটটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে।

© সমকাল 2005 - 2019

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭ (প্রিন্ট পত্রিকা), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) । ইমেইল: [email protected]