বাণিজ্য বাড়াতে চেক প্রজাতন্ত্রের সঙ্গে চুক্তি

২৩ মে ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

চেক প্রজাতন্ত্রের সঙ্গে বাণিজ্য উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা চুক্তি করেছে সরকার। চুক্তির আওতায় উভয় দেশ একটি যৌথ কমিশন গঠন করবে। কমিশনে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে নিয়মিত আলোচনা হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এবং চেক শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী কারেল হাবলিক চেক প্রজাতন্ত্রের রাজধানী প্রাগে গত মঙ্গলবার চুক্তিতে সই করেন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ বিভাগ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, চুক্তি সইয়ের আগে বৈঠকে বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করেন চেক বাণিজ্যমন্ত্রী। তিনি বাংলাদেশে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ, শিক্ষা এবং প্রশিক্ষণ, তথ্যপ্রযুক্তি ও পাটজাত পণ্য খাতে সহায়তা দেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন। এ সময় বাংলাদেশে বিনিয়োগে চেক উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করার অনুরোধ জানান টিপু মুনশি। তিনি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ বিনিয়োগের জন্য আকর্ষণীয়। বিদেশি বিনিয়োগের (এফডিআই) ক্ষেত্রে উদারনীতি গ্রহণ করেছে। চেক প্রজাতন্ত্রের বিনিয়োগকারীরা এখানে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবেন। এ দেশে বিনিয়োগ করে চেক উদ্যোক্তারা ইইউতে রফতানিতে শুল্ক্কমুক্ত সুবিধার সুযোগ নিতে পারবেন। বিশেষ করে তৈরি পোশাক, চামড়াজাত পণ্য, ওষুধ, হালকা প্রকৌশল খাতে বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে।

পরে বাণিজ্যমন্ত্রী দেশটির সাবেক মন্ত্রী এবং চেম্বার অ্যান্ড কমার্সের সভাপতি ভদ্মাদিমির দিলোহির সঙ্গে বৈঠক করেন। চেক সফরের আগে তিনি স্লোভেনিয়া সফর করেন। দেশটির কৃষি, বন ও খাদ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধির বিষয়ে মতবিনিময় করেন।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) জোটের সদস্য হিসেবে চেক প্রজাতন্ত্রের সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্কে লাভবান হবে বাংলাদেশ। গত অর্থবছর দু'দেশের বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল প্রায় ৫০ কোটি ডলারের বেশি। এই বাণিজ্য একতরফা বাংলাদেশের পক্ষে। অর্থাৎ, চেক প্রজাতন্ত্র বাংলাদেশ থেকে বেশি আমদানি করে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: [email protected] (প্রিন্ট), [email protected] (অনলাইন)