আলোচনায় ওয়ার্নারের ব্যাটিং

১১ জুন ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক

ভারতের কাছে ৩৬ রানে হারের পর অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং নিয়ে ভালোই ব্যবচ্ছেদ চলছে। অনেকেই এ হারের জন্য ডেভিড ওয়ার্নারের মন্থর ব্যাটিংকে দায়ী করেছেন। ৩৫২ রান তাড়া করতে নেমে অসি ওপেনার ওয়ার্নার ৮৪ বলে ৫৬ রান করেন। শুরু থেকে ওয়ার্নার যদি চালিয়ে খেলতেন তাহলে শেষ দিকে রানের চাপ বাড়ত না, অস্ট্রেলিয়ার জন্য তখন টার্গেটটা সহজ হয়ে যেত। আফগানিস্তানের বিপক্ষেও মন্থর ব্যাটিং করেছিলেন তিনি। সে ম্যাচে পঞ্চাশ স্পর্শ করতে ৭৪ বল খেলেছিলেন তিনি। ওই দিন ম্যাচ শেষ করে আসায় বিষয়টি আলোচনায় আসেনি। তবে ওয়ার্নারের পাশে দাঁড়িয়েছেন অসি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। তার মতে, ওয়ার্নারের ব্যাটিং কৌশল ঠিকই আছে। আর এক বছরের নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরা এ ওপেনার অচিরেই ঘুরে দাঁড়াবেন বলেও বিশ্বাস ফিঞ্চের।

ভারতের বিপক্ষে ওয়ার্নারের ইনিংসটি তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের সবচেয়ে মন্থরতম হাফ সেঞ্চুরি। স্বভাবতই হারের পর তার ব্যাটিং নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অনেকে। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনেও ফিঞ্চের প্রতি ছুটে যায় এ প্রশ্ন। তবে ওপেনিং পার্টনারের পাশে দাঁড়িয়েছেন ফিঞ্চ, 'কোনো রকম পরিকল্পনা করে এমন ব্যাটিং করছে না সে (ওয়ার্নার)। দল থেকেও ধীরে খেলার জন্য তাকে কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়নি। আসলে তারা তাকে খুব ভালো বল করেছে। আমাদের ইনিংসের শুরুর সময়টাতে উইকেট কিছুটা মন্থরও ছিল। তখন তারা আমাদের মারার মতো বলই দেয়নি। তবে সে গ্রেট ব্যাটসম্যান, বিশ্বমানের ক্রিকেটার। সে ঘুরে দাঁড়াবেই।' শুরুতে মন্থর ব্যাটিংয়ের কারণে শেষ ১৫ ওভারে রান প্রয়োজনীয় রান রেট গিয়ে ১১-তে ঠেকে। তখন স্টিভেন স্মিথ, উসমান খাজা ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল বিগ শট খেলতে গিয়ে আউট হয়ে যান। স্মিথের মতে দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারিয়ে বসায় তাদের কাজটা কঠিন হয়ে গিয়েছিল, 'আমার মনে হয়, যদি আমাদের হাতে কয়েকটি উইকেট থাকত এবং ব্যাটসম্যানদের কেউ শেষ পর্যন্ত থাকতে পারত তাহলে ফলাফল অন্য রকম হতে পারত। কিন্তু যখন আমরা রান রেট বাড়ানোর চেষ্টা করলাম তখনই কয়েকটি উইকেট হারিয়ে বসি। আর নতুন ব্যাটসম্যান এলে তাদের জন্য কাজটা কঠিন হয়ে যায়। তখন রান তোলার গতি আরও মন্থর হয়ে যায়।'

তাই বলে ব্যাটসম্যানদের ওপর বিশ্বাস হারাননি স্মিথ, 'ব্যাটসম্যানদের ওপর আমাদের পুরোপুরি আস্থা আছে। অতীতে তারা অনেকে ম্যাচে শুরুতে কিছু বল ব্যয় করলেও ঠিকই খেলা শেষ করে এসেছে। এ ম্যাচে আমাদের সেট ব্যাটসম্যানদের কেউ যদি থাকত তাহলে অবশ্যই একটা কিছু হতো। আমাদের টপ অর্ডারের যারা ৪০ বা ৫০ করেছে, তাদের কেউ যদি বড় ইনিংস খেলতে পারত তাহলেই আমরা জিততাম।'

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)