কেন্দুয়ায় গণধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার তিন

কথিত স্বামী পলাতক

০৯ জুন ২০১৯

কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় কথিত স্বামীর পরিকল্পনায় এক নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় তিন ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার বিকেল ৩টায় কেন্দুয়া থানা কার্যালয়ে ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

ধর্ষিতার দায়ের করা মামলায় গ্রেফতারদের মধ্যে আছে উপজেলার কান্দিউড়া ইউনিয়নের বৈরাটী গ্রামের টিপু (২২), আনোয়ার (২৪) ও আমির হামজা (২৪)। অভিযান চালিয়ে পুলিশ আমির হামজাকে গতকাল ময়মনসিংহের গৌরীপুর ও আনোয়ারকে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা থেকে গ্রেফতার করেছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কেন্দুয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম জানান, টিপুকে শুক্রবার দুপুরেই নেত্রকোনার মদন উপজেলা থেকে গ্রেফতার করা হয়। থানায় তাকে শনাক্ত করেন ধর্ষিতা ওই নারী। পুলিশের কাছে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী শনিবার আনোয়ার ও আমির হামজাকে গ্রেফতার করা হয়। এ ছাড়া টিপু শনিবার নেত্রকোনা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তার অপরাধের কথা স্বীকার করেছে। ধর্ষণের পরিকল্পনাকারী কথিত স্বামী পলাতক। সে তার নিজের প্রকৃত পরিচয় গোপন রেখে দুই বছর ধরে ধর্ষিতা ওই নারীর সঙ্গে স্বামীর অভিনয় করে নারী-সংক্রান্ত আরও নানা অপরাধ করেছে বলে পুলিশ জানায়।

সংবাদ সম্মেলনে ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান  বলেন, ধর্ষিতার স্বামীর পরিচয়দানকারী নিজেকে প্রথমে সুমন নামে পরিচয় দেয় ও তার বাড়ি মদন উপজেলার জাওলা গ্রামে বলে জানায়। প্রাথমিক তদন্তে বেরিয়ে এসেছে তার প্রকৃত নাম নূরে আলম। বাড়ি কান্দিউড়া ইউনিয়নের বৈরাটী গ্রামে।

গত বৃহস্পতিবার তার কথিত স্ত্রীকে হাওরে বেড়ানোর কথা বলে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে মদন এলাকার দিকে যায়। সন্ধ্যায় গোগবাজার এলাকা থেকে ওই নারীর বাবার বাড়ির দিকে রওনা দিয়ে একটি ইটভাটার কাছে গেলে টিপু, আনোয়ার ও আমির হামজা তার কথিত স্বামীকে বেঁধে ওই নারীকে ধর্ষণ করে। অভিযোগ উঠেছে, এ ঘটনা ওই নারীর কথিত স্বামীর যোগসাজশে পরিকল্পিতভাবে ঘটানো হয়েছে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)