পদ্মায় তীব্র স্রোত: ড্রেজিং পাইপের সংযোগ খুলে নৌ চলাচল ঝুঁকিতে

১৫ জুলাই ২০১৯

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

পদ্মায় তীব্র স্রোতে ড্রেজিং পাইপের সংযোগ খুলে যাওয়ায় নৌ চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে- সমকাল

পদ্মায় তীব্র স্রোতে ড্রেজিং পাইপের সংযোগ খুলে গেছে। এতে দুর্ঘটনার ঝুঁকিতে পড়েছে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি রুটে চলাচলকারী নৌযানগুলো। বর্ষার মাঝামাঝি এই সময়ে বাতাসের তীব্রতায় খরস্রোতা পদ্মায় আছড়ে পড়ছে বড় বড় ঢেউ। প্রবাহিত হচ্ছে প্রচণ্ড গতিবেগে স্রোত। এর মধ্যে নাব্য সংকট নিরসনে লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে ড্রেজিংয়ের জন্য অপরিকল্পিতভাবে পাইপ স্থাপনে সরু হয়ে পড়লেও ঝুঁকি নিয়ে চলছিল নৌযান। কিন্তু প্রচণ্ড গতিবেগের ঘুর্ণায়মান স্রোতে ড্রেজিং পাইপের জয়েন্ট খুলে গেছে।

এমনকি পাইপের নোঙরও উপড়ে গেছে। আর এলোমেলো হয়ে থাকা পাইপগুলোতে নৌরুট আরও সরু হয়ে পড়ায় মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে চলছে ফেরিসহ নৌযানগুলো। সরু এই এলাকায় ওয়ানওয়ে পদ্ধতিতে ফেরি চালাতে গিয়ে প্রচণ্ড স্রোতের বিপরীতে ভামমান অবস্থায় অপেক্ষায় থাকতে হয়। তবে স্রোতের তোড়ে মাঝে মাঝেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলছে ফেরিগুলো। যে কোনো সময় বিপরীতমুখী দুটি ফেরি অতিক্রম করার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সংঘর্ষের আশঙ্কায় ভুগতে হচ্ছে সংশ্লিষ্টদের।

পানি উন্নয়ন বোর্ড ঢাকা বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল আউয়াল বলেছেন, পদ্মার মাওয়া পয়েন্টে পানি প্রবাহিত হচ্ছে প্রতি সেকেন্ডে ১ লাখ ৪০ হাজার ঘন মিটার। কখনও কখনও গতিবেগ আরও বেড়ে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে পদ্মা।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া কার্যালয় ঘাট সুপার মো. সাফায়েত হোসেন জানান, নাব্য সংকটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হলে বিআইডব্লিউটিএ লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে ড্রেজিং কাজ করলেও স্থাপন করা ড্রেজারের পাইপগুলো পরিকল্পিত না হওয়ায় নৌরুট সরু হয়ে পড়েছে। এ স্থান দিয়ে ঝুঁকিতে ফেরি চলাচল করলেও দুটি ফেরি পাশাপাশি অতিক্রম করতে পারছে না। এতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সংঘর্ষের শঙ্কায় ভুগতে হচ্ছে সংশ্নিষ্টদের।

বিআইডব্লিউটিসির একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের ওই অংশে একটি চর জেগে উঠেছে। সেখানে দুটি মুখের সৃষ্টি হয়েছে। এ দুটি মুখ বা চ্যানেল সচল থাকলে দ্বিমুখীভাবে ফেরিগুলো চলাচলে কোনো সমস্যা হতো না। বিষয়টি বিআইডব্লিউটিএর ড্রেজিং বিভাগকে অবহিত করলেও তারা ইতিবাচক কোনো পদক্ষেপ নেননি।

বিআইডব্লিউটিএর উপ-পরিচালক (নৌসংরক্ষণ ও পরিচালন) এসএম আজগর আলী জানান, যথাযথভাবে স্থাপন করা হলেও প্রচণ্ড স্রোতে ড্রেজারের পাইপগুলোর জয়েন্ট ছুটে যাওয়ার পাশাপাশি নোঙরও উঠে গেছে। ড্রেজার ও পাইপ লৌহজং টার্নিং পয়েন্ট এলাকা থেকে সরিয়ে কিছুটা দূরে রেখে ড্রেজিং কাজ চলমান রাখা হবে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: [email protected] (প্রিন্ট), [email protected] (অনলাইন)