স্মার্টফোনে ভিডিও সম্পাদনায় ফ্রি অ্যাপস

০৯ জুলাই ২০১৯

হাতে একটি স্মার্টফোন থাকলে যেন দুনিয়াটাই আপনার মুঠোবন্দি। পথে ঘাটে কিংবা কোথাও বেড়াতে গিয়ে আকর্ষণীয় দৃশ্য ভিডিও করে দুনিয়াকেই চমকে দেওয়া সম্ভব। তবে তার জন্য চাই ভালো মানের ভিডিও সম্পাদনা অ্যাপ। ভিডিও সম্পাদনায় ফ্রি অ্যাপস নিয়ে লিখেছেন তাছলিমা মেহযাবিন

স্মার্টফোনে ছবি তোলার পাশাপাশি ভিডিওগ্রাফিও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। ফেসবুক, ইউটিউব, ইনস্টাগ্রামের মতো জনপ্রিয় ডিজিটাল মাধ্যমে ছবির পাশাপাশি ভিডিও পোস্ট করার প্রবণতা বাড়ছে। তবে অনেকেই স্মার্টফোনে ভিডিও ধারণ করলেও ঠিকঠাক এডিটিং তথা সম্পাদনার কাজটি করতে পারে না। তবে গুগলের প্লেস্টোরে রয়েছে বেশ কিছু ভিডিও সম্পাদনা অ্যাপস। এসব অ্যাপসের মাধ্যমে স্মার্টফোনে সহজেই ইচ্ছেমতো ভিডিও সম্পাদনা করে নেওয়া যায়। বিশেষ করে যারা ইউটিউবে ভিডিও পোস্ট করে আয়ের কথা ভাবছেন, অথচ মানসম্পন্ন কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপ নেই, তাদের জন্য কার্যকরী ডিভাইস হতে পারে স্মার্টফোন। আর এসব অ্যাপসের মাধ্যমেই কেবল আপনার প্রিয় স্মার্টফোনটি ভিডিও সম্পাদনায় কাজের কাজি হয়ে উঠতে পারে। ভিডিও সম্পাদনার পাশাপাশি এসব অ্যাপসের সুবিধা হচ্ছে, অ্যাপসের মাধ্যমে ছবিও তোলা সম্ভব।

স্মার্টফোন মূলত ভিডিও করার ধারণায় আমূল পরিবর্তন এনেছে। হাতে একটি স্মার্টফোন থাকলে যেন দুনিয়াটাই আপনার মুঠোবন্দি। পথে-ঘাটে কিংবা কোথাও বেড়াতে গিয়ে আকর্ষণীয় দৃশ্য ভিডিও করে দুনিয়াকেই চমকে দেওয়া সম্ভব। তবে তার জন্য চাই ভালো মানের ভিডিও সম্পাদনা অ্যাপ।

অ্যাকশন মুভি এফএক্স

ভিডিও সম্পাদনায় অ্যাকশন মুভি এফএক্স জনপ্রিয় একটি অ্যাপ। স্মার্টফোনে সাধারণ গতানুগতিক ভিডিও শুট ছাড়াও অ্যাকশন মুভির স্টাইলে ভিডিও শুটিং করতে চাইলে অ্যাপটি অপরিহার্য। এ অ্যাপটির সহযোগিতায় মারমার-কাটকাট দৃশ্য চমৎকারভাবে ফুটিয়ে তোলা সম্ভব। সাধারণ একটি ভিডিওতে অ্যাপটির সহযোগিতায় গুলি করে কিংবা বোমা ফাটিয়ে যে কোনো গাড়ি বা বিমান ভাংচুর অথবা বড় কোনো স্থাপনা ধ্বংস করা কিংবা জ্বালিয়ে দেওয়ার মতো দৃশ্য জুড়ে দেওয়া যাবে। সেটিংস এবং নেভিগেশনসহ অ্যাপটির ইন্টারফেস এত সহজ করে তৈরি করা হয়েছে যে, যে কেউ অ্যাপটির মাধ্যমে ভিডিও তৈরি করতে পারবে, নানারকম ইফেক্ট দিতে পারবে, ইচ্ছামতো সাউন্ড যোগ করতে পারবে। বিশেষ করে যারা স্মার্টফোনে সিনেমার দৃশ্যের মতো ভিডিও শু্যট করতে চান অ্যাপটি তাদের জন্য আদর্শ।

হাইপারল্যাপ্স

ভিডিও সম্পাদনায় হাইপারল্যাপ্সও অসাধারণ একটি অ্যাপ। অ্যাপটির বিশেষত্ব হচ্ছে এটি টানা ৪৫ মিনিট ফুটেজ ধারণ করতে পারে। অ্যাপটি ফাংশনালিটি খুব সহজ। নতুনদের জন্য এটি কার্যকর। কেননা অনেকের ভিডিও ধারণের সময় হাত কাপাকাপি করে। তবে এ অ্যাপ ব্যবহার করে ভিডিও ধারণ করলে হাত কাপলেও সমস্যা নেই। কেননা অ্যাপটিতে রয়েছে ইন হাউজ স্ট্যারিলাইজেশন নামের বিশেষ ফিচার। এই ফিচার থাকায় ভিডিও ধারণে হাত কাঁপাকাঁপির কোনো প্রভাব পড়ে না। এই অ্যাপে ধারণ করা ভিডিওর প্রিভিউকে এক থেকে ১২গুন জুম রেঞ্জের মধ্যে সেট করে ইউটিউব, ফেসবুক কিংবা ইনস্টাগ্রামে আপলোড করা যায়।

ভাইন

শর্ট ফিল্ম ধাঁচের ভিডিও মুভি নির্মাতাদের জন্য কাঙ্ক্ষিত হতে পারে ভাইন অ্যাপ। অ্যাপটির মাধ্যমে ৬ সেকেন্ড থেকে ১৫ মিনিট পর্যন্ত ভিডিও ধারণ করা যায়। এতে রয়েছে ভিডিও সম্পাদনায় অসাধারণ ফিচার। নানামাত্রিক শব্দ যোগ করে ভিডিওকে আকর্ষণীয় করে তুলতে অ্যাপটির জোড়া মেলা ভার। ইউটিউবে অনেকে আছেন, শুধু এ অ্যাপের মাধ্যমে ভিডিও নির্মাণ করে যথেষ্ট পরিমাণ আয় করতে সমর্থ হয়েছে।

স্টপ মোশন স্টুডিও

স্টপ মোশন স্টুডিও অ্যাপটির বিশেষত্ব হচ্ছে, এটির ভিডিওতে স্লো মোশন যোগ করার সুযোগ দেয়। যারা ভিডিওতে স্লো মোশন যোগ করতে চায়, তাদের কাছে অ্যাপটি দারুণ জনপ্রিয়। কয়েকটি স্টিল ছবিকে একত্র করে স্লো মোশন ইফেক্ট তৈরিতেও অ্যাপটিতে রয়েছে বিশেষ ফিচার। ভিডিওতে যে কোনো ধরনের ব্যাকগ্রাউন্ড যুক্ত করা, এমনকি আপনার নিজস্ব অডিও বর্ণনাসহ নানা ফিচার রয়েছে অ্যাপটিতে। স্মার্টফোন থেকে ভিডিও নির্মাণে অ্যাপটি পরখ করে দেখতেই পারেন।

ফিল্মওরা গো

ফিল্মওরা গো অ্যাপ অনেকের কাছেই প্রিয়। সহজে ব্যবহার করা যায় বলে অ্যাপটি অন্যান্য অনেক অ্যাপের থেকে এগিয়ে রয়েছে। শুধু ভিডিও শুটিংই নয়, এই অ্যাপে ভিডিও কর্তন, মার্জ করা, ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক যুক্ত করাসহ সব ধরনের সম্পাদনার কাজ করা যাবে। অ্যাপটির মাধ্যমে ভিডিও বিপরীত দিকেও প্লে করা যায়।

© সমকাল 2005 - 2019

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭ (প্রিন্ট পত্রিকা), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) । ইমেইল: [email protected]