দৌলতপুরে নদী ভাঙন এলাকা পরিদর্শনে ডিসি

০৯ জুলাই ২০১৯ | Updated ০৯ জুলাই ২০১৯

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার যমুনা নদীর তীরবর্তী বাচামারা ও চরকাটারী ইউনিয়নের জনপদের ৪টি গ্রামে ভাঙন শুরু হয়েছে। ভাঙনের ফলে এরই মধ্যে ৩ শতাধিক বসতবাড়ি, কয়েকশ' বিঘা আবাদি জমি নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। সোমবার দুপুরে দৌলতপুর উপজেলার যমুনা নদীর তীরবর্তী বাচামারা ও চরকাটারী ইউনয়নে ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেন মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম রাজা, ইউএনও সাবরিনা শারমিন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আবুল, চরকাটারী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক মণ্ডল।

মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস বলেন, ইতিমধ্যে চরকাটারী ও বাচামারায় ৭ টন চাল বিতরণ করা হয়েছে। আরও সাহায্য সামগ্রী দেওয়া হবে। তিনি বলেন, চরকাটারী ও বাচামারায় ৬/৭ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যে ভাঙন শুরু হয়েছে জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন রোধ করা সম্ভব নয়। এখানে ভাঙন রোধ ও স্রোত ঠেকাতে বিকল্প প্রটেকশনের ব্যবস্থা নিতে হবে।

© সমকাল 2005 - 2019

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭ (প্রিন্ট পত্রিকা), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) । ইমেইল: [email protected]