রূপগঞ্জে নবজাতককে কোলে নিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে কনে

১১ জুলাই ২০১৯

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

রূপগঞ্জে নবজাতককে কোলে নিয়েই বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন নাদিয়া আক্তার নামের এক কনে। বুধবার উপজেলা অডিটোরিয়ামে নবজাতককে কোলে নিয়ে ওই কনের বিয়ে হয়। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বার ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে এ বিয়ে দেন ইউএনও মমতাজ বেগম। নাদিয়া আক্তার ভোলাব ইউনিয়নের চারিতালুক ভূঁইয়াবাড়ি এলাকার নাঈম ভূঁইয়ার মেয়ে।

ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, বছর খানেক আগে ভোলাব এলাকার সালাউদ্দিন ভূঁইয়ার ছেলে মোবারকের সঙ্গে নাঈম মিয়ার মেয়ে নাদিয়ার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মোবারকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতায় নাদিয়ার গর্ভে সন্তান আসে। সন্তান আসার পর থেকেই নাদিয়াকে অস্বীকার করে মোবারক। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ কয়েকবার বিচার সালিশও হয়। ছয় দিন আগে নাদিয়া একটি কন্যাশিশুর জন্ম দেন। অবস্থা বেগতিক দেখে মোবারক মালয়েশিয়া চলে যায়। পরে স্থানীয়দের কাছে পাঁচদিন ঘুরেও বিষয়টির উপযুক্ত সমাধান না পেয়ে নাদিয়ার পরিবার রূপগঞ্জের ইউএনও মমতাজ বেগমের কাছে এসে বিচার দাবি করে। পরে ভোলাব ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন টিটুর সহযোগিতা নিয়ে ইউএনও উভয় পরিবারকে নোটিস দেন। পরে গতকাল বিকেলে উভয় পরিবারের সম্মতিতে ১০ লাখ টাকা কাবিন ও নবজাতকের নামে দুই শতক জমি লিখে দেওয়ার চুক্তি সাপেক্ষে প্রবাসী মোবারকের সঙ্গে ভিডিও কলে নাদিয়ার বিয়ে দেন। বিয়ের শাড়ি, কাবিনের ফি ও বিভিন্ন খরচ ইউএনও নিজেই বহন করেন। বিষয়টির সুষ্ঠু সমাধান হওয়ায় স্থানীয়রা ইউএনওর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ওমর ফারুক ভূঁইয়া, ভোলাব ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন টিটু, ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান আশকারী, কাজী আব্দুল মতিনসহ অনেকে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: [email protected] (প্রিন্ট), [email protected] (অনলাইন)