নান্দনিক আসবাবে উৎসব

৩১ জুলাই ২০১৯

উৎসব পূর্ণতা পায় উদযাপনে। আর এই উদযাপন হয় বহুমাত্রিক। নানা আয়োজন একে করে তোলে বর্ণাঢ্য। যে কোনো উৎসবের উদযাপনে নাম ভূমিকায় থাকে রসনাবিলাস। বিশ্বের সর্বত্রই এটা প্রণিধানযোগ্য, আর বাঙালির বেলায় এটা ষোলআনাই সত্য। কারণ যে কোনো উপলক্ষকে কিছুতেই ছাড়তে নারাজ। উপরন্তু যে কোনো ছুতোনাতায় আয়োজনে কসুর করে না। তার ওপর সামনে কোরবানির ঈদ। এ নিয়ে চলছে প্রস্তুতি। এই ঈদের মূল উপকরণ মাংস। অতএব নানা পদ নিয়ে নিরীক্ষার ভাবনায় বাঙালি এখন থেকেই তৈরি। ট্র্যাডিশনাল পদের পাশাপাশি বিদেশি রেসিপিও যে চুলোয় চড়বে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু সেসব তো পরিবেশন করতে হবে ঠিকমতো। তবেই না অতিথিদের প্রশংসা মিলবে যথাযথ। আর বাঙালি এ ক্ষেত্রে বেশ দক্ষ। তা ছাড়া অতিথিপরায়ণতার সুনামও যে রয়েছে। এ জন্য এই ঈদে নিজের বাসার অন্যান্য ঘর তো বটেই, বিশেষ প্রাধান্য আর গুরুত্ব পায় খাওয়ার ঘর। এটাকে ঠিকমতো সাজানোর বিকল্প নেই। কারণ শুধু খাওয়া নয়, সঙ্গে চলবে অফুরান আড্ডাও। ফলে ডাইনিং রুমের ফার্নিচারে সবাই বদল আনতে চায় এই সময়ে। এ জন্য বাংলাদেশে আয়োজনের অভাব নেই। কারণ আমাদের আসবাব যেমন আন্তর্জাতিকমানের, তেমনই বৈচিত্র্যময় ও দৃষ্টিনন্দন।

এই বিশাল পরিমণ্ডলে নতুন যোগ হয়েছে ইশো। ডেকো ইশো গ্রুপের নতুন ফার্নিচার লাইন। ঐতিহ্যকে আধুনিকতার জাদুস্পর্শে উপস্থাপনই এদের লক্ষ্য। সর্বোচ্চ মানসম্পন্ন উপকরণে নিজেদের স্টেট অব দ্য আর্ট ফ্যাক্টরিতে তৈরি সব ট্রেন্ডি ফার্নিচারের অনবদ্য লাইন। একেবারে মিলিমালিস্টিক অথচ ট্রেন্ডি ডিজাইনের ফার্নিচার যে কারোরই নজর কাড়বে। এবারের ঈদে আপনার ডাইনিং রুম সেজে উঠতে পারে ইশোর আসবাবে। সমসময়ের ডিজাইনে ট্রেন্ডি আসবাবে আগেভাগে ডাইনিং রুমটা সাজিয়ে নিতে পারলে কেবল নানা পদ নয়; অতিথিদের প্রশংসা মিলবে এই ডাইনিং রুম ও এর অনুষঙ্গের। ডাইনিং রুমের জন্য তিনটি পৃথক সেট এই সময়ে বাজারজাত করেছে ইশো। নামগুলোও হৃদয়গ্রাহী :জোড়াসাঁকো ডাইনিং সেট, সোনারগাঁ ডাইনিং সেট আর পম্পেই ডাইনিং সেট। শেষেরটা দিয়ে শুরু করা যাক। যোলআনা আভিজাত্যময় এই কালেকশন।

বাংলাদেশের দারুশিল্পের ঐতিহ্য বর্ষপ্রাচীন আর সমৃদ্ধ। ফলে সেই হেরিটেজকে আধুনিক ভাবনায় ফুটিয়ে তোলা হয়েছে সোনারগাঁ ডাইনিং সেটের কালেকশনে। এই সেটে আছে টেবিল, চেয়ার, মুকো টিভি কেবিনেট, সোনারগাঁ ওপেন সিলিং লাইট, সোনারগাঁ হোয়াইট ক্যান্ডেল স্ট্যান্ড, লম্বা আর খাটো দু'ধরনের সোহো ভাস। এই সেটের ফার্নিচারে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে বাংলাদেশের সমৃদ্ধ নকশা ঐতিহ্য। এই সিরিজে ব্যবহূত হয়েছে মেহগনি আর রেড ওক ইঞ্জিনিয়ার্ড উড। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে আধুনিক জাপানি স্টাইলের আসবাব নকশায় তৈরি মুকো টিভি কেবিনেট। এই সিরিজের পুরো সেটের দাম পড়বে ৫৪,২৮০ টাকা। এ ছাড়া জোড়াসাঁকো ডাইনিং সেটে আছে ডাইনিং টেবিল (২০,১০০ টাকা) ও চেয়ার (প্রতিটি ৮৯০০ টাকা), মুকো ডিনার ওয়াগান (৩৪,৪০০ টাকা), শতরঞ্জি (২৮৫০ টাকা) আর সোহো ভাস (৫৭০ টাকা)। সব মিলিয়ে চমৎকার সমাহার। মোট মূল্য হবে ৭০,৭২০ টাকা।

আর জোড়াসাঁকো নামেই আমাদের কাছে দৃশ্যমান হয় ঠাকুরবাড়ির অন্দরমহল। ফলে জোড়াসাঁকো ডাইনিং সেটে সেই ঐতিহ্যকেই আধুনিক আর ট্রেন্ডি আসবাবের অবয়বে উপস্থাপন করা হয়েছে। আমেরিকান হার্ড হোয়াইট অ্যাশ উডে তৈরি এই ডাইনিং টেবিল ও চেয়ারের ডিজাইনে স্পষ্ট কলকাতার সমৃদ্ধ ঐতিহ্যের প্রতিফলন। সহজে পরিস্কার করা যায়। আর প্রতিদিনের ব্যবহারের জন্য আদর্শ। হোয়াইট ওক ইঞ্জিনিয়ার্ড উডে তৈরি মুকো ডিনার ওয়াগান তৈরি হয়েছে আধুনিক জাপানি স্টাইলের আসবাব নকশায়। স্বচ্ছ কাচের দরজা সহজেই সহায়ক হবে এর ভেতরে রাখা দ্রব্যাদি সম্পর্কে জানতে। তা ছাড়া ধুলো-ময়লা থেকে রক্ষা করবে যে কোনো জিনিস। এই টেবিলের অনুষঙ্গ হয়েছে গোলাপি রঙের চমৎকার প্যাটার্নে বোনা শতরঞ্জি আর সোহো ভাস। মেহগনি কাঠের তৈরি এই ভাস ডাইনিং টেবিলকে দেবে আলাদা সৌন্দর্য। আর শতরঞ্জি প্রতীয়মান করবে বাংলাদেশের হস্তশিল্পের ঐতিহ্য। এই জোড়াসাঁকো ডাইনিং সেট সাজানো হয়েছে ডাইনিং টেবিল (২০,১০০ টাকা) ও চেয়ার (প্রতিটি ৮৯০০ টাকা), মুকো ডিনার ওয়াগান (৩৪,৪০০ টাকা), শতরঞ্জি (২৮৫০ টাকা) আর সোহো ভাস (৫৭০ টাকা)। চমৎকার এই সেটের মোট মূল্যমান ৯৩,৫০০ টাকা।

এসব ফার্নিচার কেবল ডাইনিং রুমকে দৃষ্টিনন্দনই করবে না বরং আপনাকে দেবে আভিজাত্যের পাশপাশি আরাম আর আধুনিকতা। ফলে নানা আয়োজনে শুধু রসনাবিলাস হবে না, বরং ভূরিভোজের তৃপ্তিও উপভোগ করা যাবে পরিপূর্ণ মাত্রায়।

এ জন্যই ঈদের আনন্দকে বাড়িয়ে তুলতে এই তিন ধরন থেকে যে কোনো একটি সেট বেছে নেওয়া যেতে পারে। তাহলে বদলে যাবে ডাইনিং রুমের চেহারা। তবে ইশোর কোন শোরুম নেই। তাই আপনাকে লগইন করতে হবে ইশোর ওয়েবসাইট (িি.িরংযড়.পড়স.নফ)। ফেসবুক বা ইনস্টাগ্রাম পেজে ঢুঁ মারতে হবে। এসব ফার্নিচারে রয়েছে এক বছরের ওয়ারেন্টি এবং ইএমআই সুবিধা।



লেখা : অরুণাভ নীল।। ছবি :ইশো

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)