পুড়ছে আমাজন

চাপের মুখে সেনা নামাচ্ছে ব্রাজিল

বিশ্বজুড়ে বিক্ষোভ, বাণিজ্য চুক্তি রদের হুমকি ইউরোপের

২৫ আগস্ট ১৯ । ০০:০০

সমকাল ডেস্ক

বিশ্বজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ ও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে আমাজনের ভয়াবহ দাবানল নেভাতে সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দিয়েছেন ব্রাজিলের বিতর্কিত ও কট্টর ডানপন্থি প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো। আমাজন নদীবিধৌত ৯টি দেশের মধ্যে বিস্তৃত বিশ্বের সর্ববৃহৎ চিরহরিৎ এই বনাঞ্চলে গতকাল শনিবার পর্যন্ত আড়াই হাজারের বেশি স্থানে আগুন জ্বলছিল। উন্নয়নের নামে বন উজাড় করার জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে আমাজন জঙ্গলে আগুন দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিশ্বের পরিবেশবাদী সংগঠনগুলো। একে বোলসোনারো সরকারের 'আত্মঘাতী' কাজ বলে মন্তব্য করেছেন ব্রাজিলের পরিবেশবাদী বিজ্ঞানী কার্লোস নোবরে। এ ছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতারা হুঁশিয়ার করে বলেছেন, আমাজন অঞ্চলের দেশগুলো যদি আগুন নেভাতে নিষ্ফ্ক্রিয়তা দেখায়, তাহলে দক্ষিণ আমেরিকার সঙ্গে সম্প্রতি স্বাক্ষরিত বাণিজ্যচুক্তি রদ করা হবে। তবে এরই মধ্যে বলিভিয়া বিমান থেকে দাবানলে পানি ঢালতে শুরু করেছে। এদিকে আমাজনের আগুন মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন প্যারিসের মেয়র অ্যানি হিদালগো। অন্যদিকে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত বিশ্বের সাত উন্নত দেশের সংগঠন জি-৭ সম্মেলনে আমাজনের দাবানল নিয়ে আলোচনা হতে চলেছে। এসবের মধ্যেই বিশ্বজুড়ে ব্রাজিল সরকারের নিষ্ফ্ক্রিয়তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ চলছে। পৃথিবীর 'ফুসফুস'খ্যাত আমাজন বাঁচাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোটি কোটি মানুষ জোরালো দাবি জানিয়েছেন। খবর বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান, আলজাজিরা, এএফপি ও রয়টার্সের।

ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা ইনস্টিটিউট জানায়, ২০১৯ সালের প্রথম আট মাসে আমাজন জঙ্গলে প্রায় ৭৩ হাজার বারের বেশি আগুন লেগেছে। তবে আগের যে কোনো সময়ের চেয়ে এবারের আগুন সবচেয়ে ভয়াবহ। এরই মধ্যে পুড়ে গেছে সেখানকার বনের প্রায় ১০ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা। মিনিটে পুড়ছে ১০ হাজার বর্গমিটার এলাকা। এমন পরিস্থিতিতে আগুন নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার জন্য সমালোচনার মুখে পড়েছে ব্রাজিল। ট্রাম্পভক্ত হিসেবে পরিচিত দেশটির প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো বলেছেন, 'আমাজনের আগুন ব্রাজিলের অভ্যন্তরীণ বিষয়। ফলে এটি নিয়ে কারও নাক গলানো সহ্য করা হবে না।' তবে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিশ্বজুড়ে সমালোচনার মুখে শুক্রবার আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাজনে সেনা মোতায়েনের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন বোলসোনারো। তবে ঠিক কবে নাগাদ সেনা মোতায়েন করা হবে, তা নির্দিষ্ট করে বলেননি বোলসোনারো। তিনি বলেছেন, এ ব্যাপারে তার পরিকল্পনা রয়েছে। যদিও এর আগে আমাজনের সুরক্ষাকে অর্থনৈতিক উন্নয়নের পথে প্রতিবন্ধকতা হিসেবে আখ্যায়িত করেছিলেন বোলসোনারো।

আমাজনের আগুন নিয়ন্ত্রণে আরও কার্যকর ব্যবস্থা নিতে বিভিন্ন দেশে ব্রাজিল দূতাবাসের বাইরে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্যারিস, লন্ডন ও জেনেভায় বিক্ষোভকারীরা ব্রাজিল সরকারকে এ ব্যাপারে আরও উদ্যোগী হওয়ার দাবি জানায়। এ ছাড়া ব্রাজিলের প্রায় প্রতিটি শহরে বিক্ষোভ হয়েছে। একই দাবিতে আমাজন অঞ্চলের দেশ পেরু, ইকুয়েডর, বলিভিয়ায়ও বিক্ষোভ করেছে হাজার হাজার মানুষ। ফ্রান্সে জি-৭ সম্মেলন ঘিরে বিক্ষোভ করেছেন পরিবেশকর্মীরা। তারা আমাজন রক্ষায় সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। এদিকে আমাজন জঙ্গলকে বাঁচাতে বিমান থেকে পানি ঢালার উদ্যোগ নিয়েছে বলিভিয়া। আগুন নিয়ন্ত্রণে তাই সুপারট্যাঙ্কার বোয়িং বিমান ৭৪৭-৪০০ ভাড়া করার ঘোষণা দিয়েছে বলিভিয়া। শুক্রবার থেকেই আকাশপথে ওই সুপারট্যাঙ্কার নিয়ে অভিযান শুরু হয়েছে। বলিভিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট আলভারো গার্সিয়া জানিয়েছেন, দেড় লাখ লিটার পানি বা অগ্নিনির্বাপক নিয়ে উড্ডয়নে সক্ষম এই সুপারট্যাঙ্কার বোয়িং বিমান। সুপারট্যাঙ্কারটির সঙ্গে রয়েছে তিনটি অতিরিক্ত হেলিকপ্টার। রয়েছেন ৫০০ অগ্নিনির্বাপণ কর্মী। পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রয়োজনে আমাজন জঙ্গলে নেমে আগুন নেভানোর চেষ্টা করবেন তারা। প্রতিবেশী প্যারাগুয়ে ও ব্রাজিলের প্রতিও সীমান্তে আগুন ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বলিভিয়া। তবে এক্ষেত্রে তাদের উদ্যোগ এখনও দেখা যায়নি।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com