সবকিছুই ঘটে গেল স্বপ্নের মতো: মারিয়া নূর

০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মেমী আজাদ

মারিয়া নূর ছবি: রাজিব পাল

'রেডিও, টেলিভিশনের সঙ্গে সম্পর্কটা বেশ পুরনো। সেই ছোটবেলা থেকে। শিশু-কিশোরদের নিয়ে নির্মিত বিটিভির অনেক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছি। টিভি ছাড়াও আবৃত্তি করেছি ঢাকা বেতারে। তালিকাভুক্ত শিল্পীও ছিলাম। কিন্তু কখনও ভাবিনি, এই প্রচার মাধ্যমগুলোর সঙ্গে একসময় নিবিড় সম্পর্ক গড়ে উঠবে। আমি তো স্বপ্ন দেখেছি ফ্যাশন ডিজাইনার হওয়ার। পড়াশোনাও করেছি এ বিষয়ে। পাইলট হয়ে আকাশ চষে বেড়ানোর ইচ্ছাও লালন করেছি মনের মধ্যে। কিন্তু কোথা দিয়ে যেন কী হয়ে গেল! পেছন ফিরে তাকালে মনে হয়, এক নিমিষে সবকিছু বদলে গেছে। কিশোরী থেকে তরুণী, শিশুশিল্পী থেকে উপস্থাপক- সবই যেন ঘটে গেছে নাটকীয় ঘটনার মধ্য দিয়ে।

মনে হয়, এই তো সেদিনের ঘটনা। রেডিওতে অনুষ্ঠান করছিলাম, হঠাৎ কাছের একজন মানুষ এসে বললেন, 'মারিয়া, তুমি কি টিভিতে কাজ করবে?' কিছু না ভেবেই বললাম, 'চেষ্টা করে দেখতে পারি'। ব্যস, এর পর চ্যানেল টোয়েন্টিফোরে যাওয়া, অডিশন দিয়ে পাস করা এবং একনাগাড়ে অনুষ্ঠান করে যাওয়া। সেই শুরু। এর পর সবকিছুই ঘটে গেল স্বপ্নের মতো। প্রযোজক শাহরিয়ার শাকিল প্রস্তাব দিলেন 'ট্রাভেল শো' করার। এক কথায় রাজি হয়ে গেলাম। কেননা, ঘুরে বেড়ানোর নেশা তখনও যেমন ছিল, এখনও তার চেয়ে একবিন্দু কমেনি। যাই হোক ট্রাভেল শোতে কাজ করলাম। এর পর আর থেমে থাকা হয়নি। 'ক্রিকেট এক্সট্রা', 'ক্রিকেট ম্যানিয়া', 'ক্রিকেট থ্রি সিক্সটি ডিগ্রি', 'লেট নাইট কফি', 'চ্যানেল আই সেরা কণ্ঠ' 'মারিয়ার রান্নাঘর', 'এক্সপার্ট প্রেডিকশন', 'স্টার নাইট' থেকে শুরু করে একের পর এক অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করে যাচ্ছি। সেই সুবাদে উপস্থাপনা হয়ে উঠেছে আমার ধ্যান-জ্ঞান।"

এক নিঃশ্বাসে কথাগুলো বললেন মারিয়া নূর, যাকে সবাই চেনেন এ সময়ের আলোচিত উপস্থাপক হিসেবে। তার এ কথায় জানা যায়, নিজের অজান্তেই কীভাবে উপস্থাপক হিসেবে আজকের অবস্থানে চলে এসেছেন। অবশ্য উপস্থাপনা ছাড়াও মডেলিং ও অভিনয় জগতের হাতছানি ছিল। 'মেরিল লিপজেল', 'লিপটন তাজা চা', 'রুচি ঝাল চানাচুর'সহ বেশ কিছু বিজ্ঞাপনের মডেল হয়ে দর্শক- সাড়াও পেয়েছেন। দর্শকের মনোযোগ কেড়েছেন 'ফাইভ ফিমেল ফ্রেন্ডস', 'দাম্পত্য' নাটকে অভিনয় করে। তার পরও উপস্থাপনাকে প্রাধান্য দিয়ে গেছেন মারিয়া। কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'শখের বসে অভিনয় ও মডেলিং করি। কিন্তু আমার নেশা বা ধ্যান-জ্ঞান যাই বলুন, সেটা হলো উপস্থাপনা। শুধু তাই নয়, যে কোনো কিছুর চেয়ে উপস্থাপক পরিচয়কে বড় করে দেখি। এমন নয় যে, অভিনয়ের প্রতি আমার কোনো ভালো লাগা নেই। আছে, তবে এর পেছনে সময় দিতে পারি না, চর্চাও নেই। এ জন্য অভিনয় করা হয়ে ওঠে না। যখন অভিনয়ের সিদ্ধান্ত নেব, তখন নিজেকে তৈরি করে নিয়েই ক্যামেরার সামনে দাঁড়াব। এ কারণে মাঝেমধ্যে অভিনয় করলেও নিয়মিত হওয়ার ইচ্ছা নেই।' মারিয়ার এ সিদ্ধান্তকে অনেকেই হয়তো সমর্থন করবেন। কারণ তিনি হাতেগোনা যে ক'টি নাটক ও বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন সেগুলো দর্শকের মনোযোগ কাড়তে সক্ষম হয়েছে। বাছ-বিচার করে কাজ করেন বলেই মারিয়ার জন্য সংখ্যা নয়, কাজই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

সম্প্রতি ইমরানের 'শুধু তোমার ঘিরে' গানের ভিডিওতে মডেল হিসেবে দেখা গেছে মারিয়াকে। এই প্রথম তিনি কোনো গানের ভিডিওতে মডেল হিসেবে কাজ করলেন। হঠাৎ গানের ভিডিতে কেন? এই প্রশ্ন করতেই মারিয়া বলেন, "ইমরান হঠাৎ একদিন বলল, নতুন একটা গান করেছে। সেই গানের ভিডিওতে মডেল হিসেবে কাজ করব কি-না। যদিও আগে কোনো গানের মডেল হিসেবে কাজ করিনি। কিন্তু ইমরানের সঙ্গে অনেক দিনের বন্ধুত্ব বলেই না করিনি। তবে শর্ত দিয়েছি, যদি গান ভালো লাগে তাহলেই মডেল হবো। ইমরান 'শুধু তোমার ঘিরে' পাঠানোর পর বেশ কয়েকবার মনোযোগ দিয়ে শুনেছি। রোমান্টিক গান। কথা, সুর ও সঙ্গীতে একটা পরিমিতির ছাপ আছে, যা শুনলে অনেকের ভালো লাগবে। আমারও ভালো লেগেছে। তাই ইমরানের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিইনি। প্রথম মিউজিক ভিডিও হলেও কাজের অভিজ্ঞতা ছিল দারুণ। শখের বশে এমন ভিন্ন ধরনের কিছু কাজ মাঝেমধ্যে করা যেতেই পারে। কিন্তু নিয়মিত করতে চাই না।"

মারিয়া কেন নিয়মিত করতে চান না, তা আগেই বলেছেন। তার কথায়, উপস্থাপনা সবার আগে, তারপর অন্য কিছু। তাই প্রশ্ন করা হয়েছিল, উপস্থাপনায় এমন কী আছে, যার জন্য তার এত দুর্বলতা। এ নিয়ে মারিয়া বলেন, উপস্থাপনা হলো কথার শৈলী। গুণীজনরা বলেন, 'কথা কখনও শৈল্পিক, কখনও শাণিত তরবারি। এর শব্দ, বাক্য, বিষয়ের বর্ণনা মানুষকে যেমন মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখে, তেমনি ভাবনার অতলে ডুব দেওয়ায়। কথা দিয়ে কারও মুখে হাসি, কারও চোখের জল ঝরানো যায়। সে জন্যই প্রতিটি আয়োজনে উপস্থাপক এত গুরুত্বপূর্ণ।' আমিও তাদের এ কথা মনে-প্রাণে বিশ্বাস করি। সে কারণেই উপস্থাপনার প্রতি এত দুর্বলতা। মারিয়ার এ কথায় স্পষ্ট, কেন তিনি উপস্থাপনাকে এত গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। তার চেয়ে বড় কথা হলো, নান্দনিক উপস্থাপনা আর নতুন আলোয় বর্ণিল করে তুলছেন তার প্রতিটি আয়োজন। যেখানে প্রতিবারই দেখা মিলছে নতুন এক মারিয়ার নূরের।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: [email protected] (প্রিন্ট), [email protected] (অনলাইন)