বাংলাদেশে নির্মিত হলো থ্রিডি অ্যানিমেটেড সিনেমা

১২ নভেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১২ নভেম্বর ২০১৯

বিনোদন প্রতিবেদক

থ্রিডি অ্যানিমেটেড ফিল্ম নির্মাণ হলো বাংলাদেশেই। নাম ‘টুমরো’। জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত সচেতনতা তৈরি করার উদ্দেশ্যে নির্মিত এই ফিল্মটি নির্মাণ করেছেন মোহাম্মদ শিহাব উদ্দিন। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল দীপ্ত টিভিতে প্রচার হবে সিনেমাটি। 

এই থ্রিডি অ্যানিমেটেড সিনেমা সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে মঙ্গলবার দুপুরে দীপ্ত টিভিতে সংবাদ সংম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এখানেই চলচ্চিত্রটি নিয়ে বিস্তারিত জানানো হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়   ২৩ নভেম্বর ‘টুমরো’ প্রিমিয়ার শো অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ২৯ নভেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় দীপ্ত টিভিতে ফিল্মটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হবে এবং পরদিন ৩০ নভেম্বর দুপুর ১২টা ৩০মিনিটে পুনঃপ্রচারিত হবে। 

২৫ মিনিট দীর্ঘ এই অ্যানিমেটেড ফিল্মটি প্রযোজনা করেছেন কাজী জাহিন হাসান এবং কাজী জিসান হাসান। রচনা করেছেন নাসিমুল হাসান ও আহমেদ খান হীরক। 

ফিল্মটিতে দেখানো হয়েছে,বৈশ্বিক উষ্ণতার প্রভাবে মেরু অঞ্চলের বরফ গলে তলিয়ে যাবে বাংলাদেশসহ আরো অনেক দেশ। ভবিষ্যতের পৃথিবী হবে খুব ভয়ঙ্কর। সেই ভয়ঙ্কর ভবিষ্যতকেই রাতুল নামের এক শিশু দেখে ফেলে অতিপ্রাকৃত চরিত্র 'বাতাসের বুড়ো'র মাধ্যমে। যে রাতুল এতদিন প্রকৃতিকে উপেক্ষা করে গেছে সেই রাতুলই এবার ভার নেয় পৃথিবীর ভবিষ্যত বদলাবার। তার সঙ্গী হয় পৃথিবীজুড়ে থাকা হাজারও শিশু-কিশোর। ধীরে ধীরে গড়ে ওঠে জনমত। জীবাশ্ম জ্বালানির ওপর করারোপসহ আরো এমন কিছু করে রাতুল ও তার সঙ্গীরা যাতে পৃথিবীর এই মহাদুর্যোগ মোকাবেলা সম্ভব হয়ে ওঠে।

সংবাদ সংম্মেলনে আরো জানানো হয়, অ্যানিমেটেড ফিল্ম ‘টুমরো’র মূল উদ্দেশ্য শিশু-কিশোরদের কাছে জলবায়ু পরিবর্তনের সংকটকে তুলে ধরা। বিশ্বের রাষ্ট্রগুলো যেন জীবাশ্ম জ্বালানীর ওপর করারোপসহ নবায়নযোগ্য শক্তিতে অধিকতর বিনিয়োগ করে একটি সমাধান করতে পারে, এই ফিল্মটিতে তাই দেখানো হয়েছে।  

সংবাদ সংম্মেলনে ফিল্মটির নির্মাতা-কলাকুশলীরা ছাড়াও দীপ্ত টিভির পরিচালক কাজী জাহিন হাসান, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফুয়াদ চৌধুরী, হেড অফ নিউজ ইব্রাহীম আজাদসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। 

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: [email protected] (প্রিন্ট), [email protected] (অনলাইন)