গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি বয়ে আনছে আরেকটি শৈত্যপ্রবাহ

২০ জানুয়ারি ২০২০ | আপডেট: ২০ জানুয়ারি ২০২০

সমকাল প্রতিবেদক

রাজশাহীতে রোববার সকাল ১০টার দিকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়। ছবি: শরিফুল ইসলাম তোতা

ঘনিয়ে আসছে চলতি শীত মৌসুমের শেষ শৈত্যপ্রবাহ। রোববার উত্তরাঞ্চলে ঠান্ডার অনুভূতি বাড়িয়ে দিয়েছে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। একই ধরনের বৃষ্টি সোমবারও হতে পারে দেশের বিভিন্ন স্থানে। বৃষ্টির সঙ্গে উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে বাতাসের গতিবেগ বৃদ্ধি পাওয়ায় সোমবার থেকে শীত বাড়তে পারে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

রোববার সর্বোচ্চ ৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে বদলগাছীতে। রাজশাহীতে ২, বগুড়ায় ১ মিলিমিটারসহ ঈশ্বরদী, রংপুর, দিনাজপুর, তেঁতুলিয়া ও নেত্রকোনায় সামান্য বৃষ্টি হয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, চট্টগ্রাম বিভাগের কুমিল্লা, নোয়াখালী অঞ্চলসহ দেশের অন্য সব বিভাগের দু-এক জায়গায় সোমবার হালকা অথবা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে। রংপুর বিভাগে রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে। মঙ্গলবার থেকে তাপমাত্রা আরও কমে আসবে।

রাজশাহীতে রোববার সকাল ১০টার দিকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়। ছবি: শরিফুল ইসলাম তোতা

রোববার সকালে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয় শ্রীমঙ্গলে ১২ এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল কক্সবাজারে ৩০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় রোববার সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয় ১৬.৪ এবং সর্বোচ্চ ছিল ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। উত্তরাঞ্চলেও রাতের তাপমাত্রা ছিল ১২ ডিগ্রির ওপরে। তবে দিনের তাপমাত্রা অন্যান্য এলাকার চেয়ে কম ছিল।

আবহাওয়াবিদ আবদুল হামিদ সমকালকে জানান, পর্যায়ক্রমে দিনের তাপমাত্রা কমতে পারে। বৃষ্টি শেষে ঠান্ডার অনুভূতি আরও বাড়বে। উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে বাতাসের গতিবেগের সঙ্গে শীতের অনুভূতি বেড়েছে। বৃষ্টির পর তাপমাত্রা আরও হ্রাস পেয়ে মাসের শেষ শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)