দুই সিটি নির্বাচন পরিচালনায় সাত কমিটি বিএনপির

প্রকাশ: ০৫ জানুয়ারি ২০ । ২১:০৪

সমকাল প্রতিবেদক

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনায় সাতটি কমিটি গঠন করেছে বিএনপি। এর মধ্যে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হয়েছে।

এর বাইরে লিগ্যাল এইড কমিটি, টেলিভিশন টকশো সমন্বয় কমিটি, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড পর্যালোচনা কমিটি, ইভিএম ব্যবহারে জনমত গঠন কমিটি, আন্তর্জাতিক সংস্থা ও কূটনীতিকদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা কমিটি এবং পুলিশের সঙ্গে সাক্ষাৎ কমিটি রয়েছে।

রোববার দলের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে গত শনিবার দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদকে দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনায় দায়িত্ব দেওয়া হয়। এ দুই কমিটিকে পূর্ণাঙ্গ করা হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে। প্রধান সমন্বয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু এবং সদস্য হিসেবে রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, ভাইস চেয়ারম্যন আব্দুল মান্নান, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, বাণিজ্যবিষয়ক সম্পাদক সালাহ উদ্দিন আহমেদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার ও মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস।

ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক হয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। প্রধান সমন্বয়ক বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও সেলিমা রহমান। সদস্য সচিব করা হয়েছে দলের ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহানকে। সদস্য হিসেবে রয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু, আবদুল আউয়াল মিন্টু, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মহানগর উত্তর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি বজলুল বাসিত আঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান ও মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ। দক্ষিণ ও উত্তরের এ কমিটিতে বিএনপির সব অঙ্গ সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সদস্য হিসেবে থাকবেন।

নির্বাচনকালীন নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার, হয়রানি বন্ধে প্রয়োজনীয় আইনি সহায়তা দিতে বিএনপির পেশাজীবী সংগঠন আইনজীবী ফোরামের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন এবং সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট ফজলুর রহমানকে লিগাল এইড কমিটির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

নির্বাচন উপলক্ষে বিএনপির কোন কোন নেতা টকশোতে অংশ নেবেন, তা সমন্বয় করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানকে। এ কাজে তাকে সহায়তা করবেন যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। নির্বাচনী প্রচারে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড পর্যালোচনার জন্য বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা গাজী মাজহারুল আনোয়ার ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন উজ্জ্বলকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

নির্বাচনের নিরপেক্ষতা ও ইভিএম মেশিন ব্যবহারের ফল বিষয়ে জনমত গড়ে তোলার জন্য বিএনপিপন্থি শত নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ইমাজউদ্দিন আহমেদকে উদ্যোগ নিতে অনুরোধ করা হবে।

নির্বাচন নিরপেক্ষ অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের জন্য আন্তর্জাতিক সংস্থা ও বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা এবং কার্যকর পদক্ষেপ নিতে স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর নেতৃত্বে দলের পররাষ্ট্রবিষয়ক কমিটিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

দলনিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবিতে এবং নির্বাচনকালীন যে কোনো উদ্ভূত সমস্যায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ও পুলিশপ্রধানের সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য দলের ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলুর নেতৃত্বে দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য জয়নুল আবদিন ফারুক, আবুল খায়ের ভূঁইয়া ও প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com