হাঁ ড়ি র খ ব র

'মাকে বলেছি, বিয়ে করব ফুচকাওয়ালাকে!'

৩০ জুলাই ২০২০ | আপডেট: ৩০ জুলাই ২০২০

বিনোদন প্রতিবেদক

আর সবার মতো জনপ্রিয় তারকাদেরও আছে ব্যক্তিগত জীবন। যার অনেক কিছুই থাকে পাঠকের অজানা। তারকার অজানা কথাগুলো নিয়ে হাঁড়ির খবর...। আজ হাঁড়ির খবর বললেন পড়শি

আপনার সবচেয়ে বড় দূর্বলতা- যা দিয়ে বোকা বানানো যায়?

যে কোনো মানুষ চাইলেই খাওয়ার লোভ দেখিয়ে আমাকে বশ করতে পারে। ফুচকা আমার ভীষণ প্রিয়। করোনার কারণে অনেকদিন ফুচকা খেতে পারিনি। তাই মাকে বলেছি বিয়ে করব ফুচকাওয়ালাকে! যাতে ফুচকা খেতে সমস্যা না হয়।

দেশের কোনো এক জায়গায় গিয়ে দেখলেন, কেউ চিনতে পারছে না... কি করবেন?

দেশে এমন পরিস্থিতিতে সাধারণত তেমন একটা পড়িনি। তবে দেশের বাইরে গেলে এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছি। বিদেশে গেলে রাস্তায় হেডফোন লাগিয়ে নাচতে নাচতে চলাফেরা করি। এছাড়া নিজের যা ভালো লাগে, তাই করি।

যদি গান নিষিদ্ধ হয়ে যায়, তখন কী করবেন?

নিজে না গাইলেও অন্যকে উৎসাহ দেব আমার গান গাইতে। সে গান শুনেই এই দুঃখ কাটানোর চেষ্টা করব। আর গান না করলেও আরও অনেক পথই খোলা আছে। অভিনয় করতে পারব।

ভিড়ের মধ্যে কোনো একটি সিনেমার শুটিং করছেন। হঠাৎ একটি বাচ্চা মেয়ে এসে আপনাকে জড়িয়ে ধরে বলল, আপনি তার মা। তখন কী করবেন?

সোজা তাকে বাসায় নিয়ে আসব। তারপর মেয়েটিকে দত্তক নিয়েছি বলে মাকে জানাব। মায়ের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে অনেক কথা হয়। তিনি আমাকে অভয় দিয়েছেন, এমনটা করলে তিনি কখনও বাধা দেবেন না।

মিউজিক ভিডিওর শুটিংয়ে গিয়ে দেখলেন আপনার কস্টিউম টাইট হয়ে যাচ্ছে। কী করবেন?

কি আর করা। সেদিনের মতো শুটিং বন্ধ করে আড্ডাবাজি করব। এরপর নতুন পোশাক নিয়ে শুটিং করব।

রাতে একা একা গাড়ি চালাচ্ছেন। নির্জন জায়গায় গিয়ে টায়ার পাংচার হয়ে গেল। আপনি টায়ার পরিবর্তনও করতে জানেন না। কী করবেন তখন?

যেহেতু ড্রাইভ জানি না, সে জন্য সবসময় সঙ্গে একজন ড্রাইভার থাকে। তাই টায়ার পাংচার হলেও চিন্তার কিছু নেই, কারণ ড্রাইভার তো সঙ্গে আছেই।

হঠাৎ ভূত দেখলে ভয় পাবেন?

অনেক দিনের ইচ্ছা ভূত দেখার। সে জন্য রাতের ৩টা অব্দি প্রায়ই বাসার ছাদে বসে থাকি। কিন্তু সে আসে না। মনে হয়, ভূত উল্টো আমায় ভয় পায়!

আপনার একটি গোপন কথা বলুন, যা কেউ জানে না।

পায়েস খেতে খুবই ভালো লাগে। আর সে কারণে বাসার ফ্রিজে সবসময় পায়েস থাকে। এছাড়াও আরও একটি বিষয় আছে। তা হলো আচার।  যে কারণে আমার বাড়িতে সবসময় বিভিন্ন পদের আচারে ভর্তি থাকে।

প্রথম দর্শনে প্রেম বিশ্বাস করেন?

হ্যাঁ। করি। আমি প্রথম দর্শনেই ডরেমন কার্টুনের নভিতা চরিত্রের প্রেমে পড়েছিলাম।

কোন পরিস্থিতিতে পড়লে কাউকে ঠাটিয়ে চড় মারতে ইচ্ছা হয়?

কারণ ছাড়া কারও সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করলে আমার প্রচণ্ড রাগ হয়। তখন সবাই চোখের সামনে অন্য আমিকে দেখতে পায়।

একদিনের জন্য অদৃশ্য হয়ে গেলে কি দুষ্টুমি করবেন?

যারা আমার কাছের মানুষ, তাদের বেশি বেশি জ্বালাতন করব। যেগুলো এখানে বলা যাবে না।

শপিং করতে গিয়ে কোনোদিন ভক্তের বিড়ম্বনায় পড়েননি?

আসলে বিড়ম্বনা না মধুর স্মৃতি- এটি নিয়ে আমি দ্বিধান্বিত। একবার ঈদের আগের দিন রাতে শপিং করতে বেরিয়েছিলাম। কয়েকজন বাচ্চা আমাকে দেখে ছুটে এলো। তারা কোনোভাবেই পিছু ছাড়বে না। এমনকি তারা আমার জন্য ঈদের জামাও পছন্দ করে দিল।

ধরুন, মিউজিক ভিডিওর শুটিংয়ের সময় কেউ একজন আপনার কাছে চিরুনি চাইল। তার মাথায় আবার খুশকি আছে। তাকে কি চিরুনি ধার দেবেন?

কখনোই না। যদি উকুন থাকে তখন তো ভয়ঙ্কর ও বিচ্ছিরি পরিস্থিতিতে পড়তে হবে।

কোন শব্দটি দিনে বেশিবার ব্যবহার করেন?

জীবনে। তোমার জীবনে এত দুঃখ কেন? অথবা তোদের জীবন কত আনন্দের! এইরকম.....

শ্রেষ্ঠ পাওয়া উপহার...

সেটা বলা যাবে না।

কার ক্লোন বানিয়ে বাড়িতে রাখতে চান?

নিঃসন্দেহে শাহরুখ খান।

সবচেয়ে আনন্দের দিন...

অনেক আছে। বললে সবাই বুঝে যাবে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)