টনসিলের সমস্যা বাড়ে যেসব অভ্যাসে

প্রকাশ: ১৫ আগস্ট ২০ । ১২:২৫ | আপডেট: ১৫ আগস্ট ২০ । ১২:৩৪

অনলাইন ডেস্ক

শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থার গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে টনসিল। এটি গোটা শরীর সুস্থ রাখতে ভূমিকা রাখে। গলার ভেতরে ডান ও বাঁ দিকে ছোট্ট বলের মতো যা দেখা যায় তার নামই টনসিল। সাধারণ টনসিলগুলোর কোনো একটির প্রদাহ হলেই তাকে বলে টনসিলাইটিস। তখন তীব্র গলা ব্যথা, ঢোক গেলার সমস্যাসহ নানাবিধ জটিলতা দেখা দেয়।

কোনো কারণে টনসিলে সংক্রমণ দেখা দিলে কখনও কখনও তা মারাত্মক আকার ধারন করে। দৈনন্দিন জীবনে এমন কিছু অভ্যাস আছে যা টনসিলে সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়িয়ে দেয়। যেমন-

নিয়মিত হাত পরিষ্কার থেকে বিরত থাকা : জীবাণু ধ্বংসের জন্য অ্যান্টিব্যকটেরিয়াল সাবান দিয়ে নিয়মিত হাত পরিষ্কার করা উচিত। আর বাইরে বের হলে সাবানের পাওয়া সহজ না হলে হ্যান্ড স্যানিজাইটার ব্যবহার করা প্রয়োজন। এছাড়া পাবলিক টয়লেট ব্যবহারের পরও সাবান-পানি না পেলে স্যানিজাইজার ব্যবহার করা দরকার। কিন্তু অনেকেই তা করেন না। এতে হাতে জীবাণু থাকার কারণে তা সহজেই শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

পর্যাপ্ত পানি পান না করা : সুস্থ থাকতে শরীরে আর্দ্রতা বজায় রাখা খুবই জরুরি। অনেকসময় হাত বা খাবার খেতে শরীরে জীবাণু ঢুকলেও প্রচুর পানি পান করলে তা ধ্বংস হয়।

খাবারের বাসনপত্রগুলো শেয়ার করা :  অনেক গবেষণায় দেখা গেছে, মুখ মানবদেহের অন্যতম বড় অংশ যেখানে জীবাণুরা দীর্ঘসময় বসবাস করে। এ কারণেই মুখের মধ্যে জীবাণুর সংক্রমণ কমানোর জন্য অন্যদের ব্যবহৃত চামচ, কাঁটাচামচ, কাপ এবং খাওয়ার বিভিন্ন পাত্র ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

টনসিলের জন্য ক্ষতিকর খাবার ও পানীয় গ্রহণ করা :  টনসিলের সমস্যা তৈরি হয় এমন খাবার এবং পানীয় গ্রহণের ক্ষেত্রে সাবধান থাকতে হবে। এজন্য খুব মশলাদার খাবার, মিষ্টি, খুব গরম বা ঠান্ডা খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

দীর্ঘদিন পুরনো ব্রাশ ব্যবহার করা : ডেন্টাল বিশেষজ্ঞদের মতে, ট্যানসিলাইটিস থেকে বাঁচতে নিয়মিত টুথব্রাশ পরিবর্তন করা উচিত। কারণ পুরানো টুথব্রাশ  টনসিলের প্রদাহের জন্য দায়ী । একই ও পুরনো টুথব্রাশ দীর্ঘদিন ব্যবহার করলে জীবাণুর সংক্রমণ বাড়বে। এতে টনসিলের ঝুঁকিও বেড়ে যাবে। সূত্র: হেলিদি বিল্ডার্জড

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com