শাহজাদপুরের ওসিকে অপসারণের দাবিতে আন্দোলন

প্রকাশ: ৩১ আগস্ট ২০ । ২০:৩২ | আপডেট: ৩১ আগস্ট ২০ । ২০:৪২

সিরাজগঞ্জ ও শাহজাদপুর প্রতিনিধি

আন্দোলনরত শ্রমিকদের একাংশ -সমকাল

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থানার ওসি আতাউর রহমানের  দ্রুত অপসারণের দাবি জানিয়েছেন বিক্ষুব্ধ ও আন্দোলনরত উত্তরবঙ্গ ট্যাঙ্কলরি শ্রমিকরা। সোমবার সকালে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের বাঘাবাড়ি নৌবন্দর ও ঢাকা-পাবনা মহাসড়কের পাশে উত্তরবঙ্গ ট্যাঙ্কলরি শ্রমিক কার্যালয়ের সামনে এ আন্দোলন শুরু হয়। একই দাবিতে আন্দোলনরত শ্রমিকরা দুপুর পর্যন্ত বাঘাবাড়ীর পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা তেল বন্দরের জ্বালানি তেল উত্তোলন বন্ধ রাখেন। খবর পেয়ে সাংসদ হাসিবুর রহমান স্বপন দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন।

পরে আন্দোলনকারীরা দুপুরে তেল উত্তোলন চালু করলেও ওসির অপসারণের দাবিতে অনড় ছিলেন। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ওসির অপসারণ ও ইজারাদার সালাম ব্যাপারীর শাস্তি না হলে অনির্দিষ্ট কালের জন্য ধর্মঘট এবং উত্তরবঙ্গের সবগুলো জেলায় তেল সরবরাহ বন্ধের ঘোষণা দেন বিক্ষোভকারীরা।

জানা যায়, বাঘাবাড়ি ঘাটে ইজারার কাজে শ্রমিক দ্বন্দ্বের জেরে নৌবন্দরের হ্যান্ডলিং ঠিকাদার উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সালাম ব্যাপারীর অনৈতিক প্রভাবে ওসির নির্দেশে সাদ্দাম হোসেন নামে এক শ্রমিককে শনিবার ধরে মারপিট করে পুলিশ। বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় অবস্থা বেগতিক দেখে হাসপাতালে ভর্তির বদলে থানায় নিয়ে যুবককে আটক দেখানো হয়। পরে শ্রমিকদের আন্দোলনের ভয়ে রোববার রাতে সাদ্দামকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। এ ঘটনার পর সোমবার সকালে বাঘাবাড়ি ঘাটে উত্তরবঙ্গ ট্যাঙ্কলরি শ্রমিকেরা কার্যালয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। ওসির অপসারণ ও সালাম ব্যাপারীর শাস্তির দাবিতে উত্তরবঙ্গ ট্যাঙ্কলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে কার্যকরি সভাপতি আজিজুর রহমান গ্যাদা, সহ-সভাপতি ইউনুস আলী, সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আজমত মোল্লা, লাইনসেক্রেটারি ফেরদৌস হোসেনসহ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, সালাম ব্যাপারীর লোকজনের বিরুদ্ধে একজন শ্রমিককে মারপিটের খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসা দিয়ে থানায় নিয়ে আসে। এখানে যদি কারো গাফিলাতি থাকে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অভিযোগ না করে আন্দোলনের নামে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করার বিষয়টিও অনৈতিক। ঘটনাটির মিমাংসায় স্থানীয় এমপি আলোচনায় বসেছেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com