সতর্কতা মেনে যান পার্লারে

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

তৌহিদুল ইসলাম তুষার

নিজেদের মধ্যে লুকিয়ে থাকা বহু প্রতিভাই লকডাউনে আবিস্কার করে ফেলেছি আমরা। কেউ রেস্তোরাঁকে হার মানিয়ে বিরিয়ানি রাঁধছেন, আবার কেউ তার সঙ্গীর মধ্যেই হেয়ার স্টাইলিস্ট পেয়ে গিয়েছেন। তবে বাড়িতে যতই হেয়ার কালার, বডি স্পা করি না কেন, খুঁতখুঁতানি থেকেই যায়। পেশাদার বিউটিশিয়ানের জন্য একটু হলেও মন কেমন করে। আর সত্যিই কিছু কিছু যত্ন আর ফিনিশিং পার্লারে যেমনটা হয়, বাড়িতে ঠিক তেমনটা সম্ভব হয় না।

এরই মধ্যে খুলে গেছে বেশির ভাগ পার্লার। 'বিউটি ইন্ডাস্ট্রি'-তে বলা হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি। কিন্তু তা কি আসলেই সম্ভব? ফেশিয়াল, স্পা, পেডিকিউর, ম্যানিকিউর সব কিছুতেই বিউটিশিয়ানের সংস্পর্শে আসতেই হয়। তবে এই সুযোগটি যাতে ভাইরাস নিতে না পারে, তার জন্য অনেক পার্লারই কিছু স্বাস্থ্যবিধি মানছে। একদিকে যেমন পার্লারগুলোকে সতর্ক থাকতে হবে, অন্যদিকে গ্রাহকদেরও মানতে হবে কিছু নিয়ম।

নিয়ম মানুন সুরক্ষিত থাকুন : পার্লারে যাওয়ার পরিকল্পনা থাকলে ২৪ ঘণ্টা আগে ফোন করে কত ক্ষণের ও কী কাজ করাবেন কথা বলে নিন। বাইরের পরিবেশের সংস্পর্শে কম আসছেন। অনেক ক্ষণ মাস্ক পরতেও হচ্ছে। অনেক দিন সেভাবে চর্চাও হয়নি। ফলে অনেকেরই ত্বকের সংবেদনশীলতা বেড়েছে। ফেসিয়াল বা ওয়াক্সিংয়ের ক্ষেত্রে আগে যেসব প্রডাক্ট ব্যবহার করতেন, সেগুলো এখন সহ্য না-ও হতে পারে। চেনা প্রডাক্টেও ত্বকে র‌্যাশ, খোসা ওঠার সমস্যা হচ্ছে। পরিষেবা শুরুর আগে রূপবিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। আপনি সুস্থ থাকলে কেবল পার্লারে যাবেন। পার্লারে স্পা বা ফেসিয়াল করতে গেলে অনেক সময়েই ঠান্ডা লেগে যায়। সাবধান হোন সে ব্যাপারেও। মাস্ক, হেড কভার, সাবান, স্যানিটাইজারের প্রস্তুতি নিয়ে পার্লারে যান। ফেস শিল্ড বা প্রটেক্টিভ গগলসও পরতে পারেন। পরিষেবার সময় সেগুলো খুলে রাখলে, আবার পরার আগে স্যানিটাইজ করুন। গগলস, শিল্ড ধুয়ে নিন। কোনো সঙ্গী বা শিশুদের পার্লারে নিয়ে যাবেন না। সঙ্গে শুধু অত্যাবশ্যক জিনিস রাখবেন। মোবাইল, পার্সের সঙ্গে নিজের তোয়ালে ও চিরুনিও নিতে পারেন। ম্যানিকিউর, পেডিকিউরের ক্ষেত্রে নেলপলিশ নিয়ে যান। যে পার্লারে জায়গা বেশি, সেখানে গেলেই ভালো। মূল্য পরিশোধে ডিজিটাল পেমেন্ট করতে চেষ্টা করুন।

পার্লরের জন্য সতর্কতা : ভিড় এড়াতে এবং গ্রাহক ও কর্মীদের মধ্যে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে 'অ্যাপয়েন্টমেন্ট'-এর ভিত্তিতে পরিষেবা দিতে পারেন। পার্লারে ঢোকার মুখে দরজা খোলার জন্য নিজস্ব কর্মী রাখতে পারেন। শরীরের তাপমাত্রা মাপা, স্যানিটাইজার স্প্রে করুন। দিতে পারেন ডিসপোজেবল শু কভার। ফলে জীবাণুমুক্ত থাকবে পার্লার। রোজ পার্লারের কর্মীদের তাপমাত্রাও পরীক্ষা করুন, তাদের সুস্থতার দিকে খেয়াল রাখুন। অবশ্যই পিপিই কিট, গ্লাভস, মাস্ক ও ফেসশিল্ড দিন কর্মীদের। প্রতিটি গ্রাহকের ব্যবহারের পর চেয়ার, বেড ও মেশিন, হেয়ার কাটের কাঁচি ও চিরুনি সাবান অথবা স্যানিটাইজারে পরিস্কার করুন। পালটে ফেলুন গ্লাভস। প্রতিটি গ্রাহকের জন্য লোশন, ক্রিম বা তেলের আলাদা পাউচের ব্যবস্থা করুন। ব্যবহারের পর সেগুলো ফেলে দিন। কর্মীরা সবাই যেন স্বাস্থ্যবিধি মানে, সেদিক খেয়াল রাখুন। পার্লারে এসি চললেও কিছুক্ষণ অন্তর দরজা বা জানালা খুলে দিন। বদ্ধ পরিবেশ যাতে না থাকে। পার্টি বা বিয়েবাড়ির মেকআপ বা হেয়ার স্টাইলে, প্রত্যেকের জন্য নতুন কসমেটিকস ব্যবহার করুন।

বাড়ি ফিরে যত্ন : বাড়ি ফেরার পর নিয়ম মেনে জিনিসপত্র, কাপড় ধুয়ে দিন। যেগুলো ধোয়া যাবে না, সেগুলো স্যানিটাইজ করে নিন। অবশ্যই শ্যাম্পু-সাবান দিয়ে গোসল করুন। কয়েক ধরনের স্পা-এ দু'দিনের আগে শ্যাম্পু করতে বা কিছু ফেশিয়ালের পর কয়েক ঘণ্টা ফেসওয়াশে নিষেধ থাকে। করোনা-আবহে এসব নিয়মে মন দিলে চলবে না। এ ক্ষেত্রে রূপবিশেজ্ঞদের পরামর্শ নিতে পারেন। া

© সমকাল ২০০৫ - ২০২০

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ (প্রিন্ট), +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ (অনলাইন) | ইমেইল: samakalad@gmail.com (প্রিন্ট), ad.samakalonline@outlook.com (অনলাইন)